তিব্বতে বরফধসে নিহত ৮
jugantor
তিব্বতে বরফধসে নিহত ৮

  অনলাইন ডেস্ক  

১৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪:৫২:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

তিব্বতে বরফধসে নিহত ৮

তিব্বতের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় অঞ্চলের নাইংচি শহরে বরফধসে অন্তত আটজন নিহত হয়েছেন।

চীন সরকার মৃতদেহ উদ্ধার ও নিখোঁজদের খুঁজে বের করতে দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছে। এখন পর্যন্ত আটজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সিনহুয়া নিউজের বরাত দিয়ে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে মেনলিং কাউন্টির পাই গ্রাম ও মেডগ কাউন্টির ডক্সং লা টানেলের মধ্যবর্তী রাস্তার একটি অংশে এই বরফধসের ঘটনা ঘটেছে। বরফের নিচে অনেক মানুষ ও যানবাহন আটকা পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে চীনা কর্মকর্তারা বলেছেন, নিখোঁজ মানুষের সংখ্যা এখনো সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার সরকার সমর্থিত সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ দুর্ঘটনার রাতেই ১৩১ জনের একটি উদ্ধারকারী দল ও ২৮টি গাড়ি ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছে। এ ছাড়া চীনের জরুরি ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় ওই অঞ্চলে একটি ওয়ার্কিং গ্রুপও পাঠিয়েছে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিব্বতের ওই রাস্তা অন্তত ১০০ ফুট বরফের নিচে ঢাকা পড়েছে। বরফ খনন করে রাস্তা বের করার জন্য চীনের ইমার্জেন্সি রেসকিউ সদর দপ্তর বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ২৬৭ জন উদ্ধারকর্মীসহ ৭০টি যানবাহন, ১০টি বড় আকারের সরঞ্জাম ও ৯৯৪টি অনুসন্ধান ডিভাইস পাঠিয়েছে।

নাইংচি পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় একটি পর্যটনকেন্দ্র। স্থানটি ৯ হাজার ৩০০ ফুট গড় উচ্চতায় অবস্থিত।

তিব্বতে বরফধসে নিহত ৮

 অনলাইন ডেস্ক 
১৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০২:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তিব্বতে বরফধসে নিহত ৮
ছবি: সংগৃহীত

তিব্বতের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় অঞ্চলের নাইংচি শহরে বরফধসে অন্তত আটজন নিহত হয়েছেন। 

চীন সরকার মৃতদেহ উদ্ধার ও নিখোঁজদের খুঁজে বের করতে দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছে। এখন পর্যন্ত আটজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সিনহুয়া নিউজের বরাত দিয়ে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে মেনলিং কাউন্টির পাই গ্রাম ও মেডগ কাউন্টির ডক্সং লা টানেলের মধ্যবর্তী রাস্তার একটি অংশে এই বরফধসের ঘটনা ঘটেছে। বরফের নিচে অনেক মানুষ ও যানবাহন আটকা পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

তবে চীনা কর্মকর্তারা বলেছেন, নিখোঁজ মানুষের সংখ্যা এখনো সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি। 

বৃহস্পতিবার সরকার সমর্থিত সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ দুর্ঘটনার রাতেই ১৩১ জনের একটি উদ্ধারকারী দল ও ২৮টি গাড়ি ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছে। এ ছাড়া চীনের জরুরি ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় ওই অঞ্চলে একটি ওয়ার্কিং গ্রুপও পাঠিয়েছে। 

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিব্বতের ওই রাস্তা অন্তত ১০০ ফুট বরফের নিচে ঢাকা পড়েছে। বরফ খনন করে রাস্তা বের করার জন্য চীনের ইমার্জেন্সি রেসকিউ সদর দপ্তর বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ২৬৭ জন উদ্ধারকর্মীসহ ৭০টি যানবাহন, ১০টি বড় আকারের সরঞ্জাম ও ৯৯৪টি অনুসন্ধান ডিভাইস পাঠিয়েছে।

নাইংচি পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় একটি পর্যটনকেন্দ্র। স্থানটি ৯ হাজার ৩০০ ফুট গড় উচ্চতায় অবস্থিত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন