ইউক্রেনকে এবার যুদ্ধবিমান দিচ্ছে পশ্চিমারা
jugantor
ইউক্রেনকে এবার যুদ্ধবিমান দিচ্ছে পশ্চিমারা

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২:২৪:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

যুদ্ধবিমান

রুশ বাহিনীর মোকাবিলায় ইউক্রেনের মিত্ররা দেশটিকে যুদ্ধবিমানও দিতে একমত। এমন কথা জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজনিকভ। রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। খবর আলজাজিরার।

এ সময় রেজনিকভ বলেন, মিত্রদের কাছ থেকে যুদ্ধবিমান দ্রুত আসার পথে রয়েছে। এগুলো দিয়ে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই রুশ বাহিনীর ওপর তীব্র হামলা করা হবে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির কাছে যুদ্ধবিমান ও যুদ্ধজাহাজ চেয়েছে ইউক্রেন। তবে জেলেনস্কির এমন দাবি সরাসরি নাকচ করে দিয়েছিল দেশ দুটি।

এদিকে ওলেকসিকে প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। তার স্থলে দেশটির সামরিক গোয়েন্দা বিভাগের প্রধানকে বসানো হতে পারে।

এর আগে ইউক্রেনকে ট্যাংক সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, পোল্যান্ড ও জার্মানি। তবে দেশটিতে ট্যাংক পৌঁছানোর আগেই আগ্রাসনের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে রুশ সেনারা।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর বাখমুত দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে রুশ সেনারা। তবে শহরটি রক্ষায় আমৃত্যু লড়াই করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জেলেনস্কি।

ইউক্রেনকে এবার যুদ্ধবিমান দিচ্ছে পশ্চিমারা

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যুদ্ধবিমান
ছবি: সংগৃহীত

রুশ বাহিনীর মোকাবিলায় ইউক্রেনের মিত্ররা দেশটিকে যুদ্ধবিমানও দিতে একমত। এমন কথা জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজনিকভ। রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। খবর আলজাজিরার। 

এ সময় রেজনিকভ বলেন, মিত্রদের কাছ থেকে যুদ্ধবিমান দ্রুত আসার পথে রয়েছে। এগুলো দিয়ে কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই রুশ বাহিনীর ওপর তীব্র হামলা করা হবে। 

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির কাছে যুদ্ধবিমান ও যুদ্ধজাহাজ চেয়েছে ইউক্রেন। তবে জেলেনস্কির এমন দাবি সরাসরি নাকচ করে দিয়েছিল দেশ দুটি।  

এদিকে ওলেকসিকে প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। তার স্থলে দেশটির সামরিক গোয়েন্দা বিভাগের প্রধানকে বসানো হতে পারে। 

এর আগে ইউক্রেনকে ট্যাংক সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, পোল্যান্ড ও জার্মানি। তবে দেশটিতে ট্যাংক পৌঁছানোর আগেই আগ্রাসনের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে রুশ সেনারা। 

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর বাখমুত দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে রুশ সেনারা। তবে শহরটি রক্ষায় আমৃত্যু লড়াই করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জেলেনস্কি। 

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন