মিয়ানমারের সেনাপ্রধানের অভ্যুত্থানের হুমকি, অস্বীকার প্রেসিডেন্টের দফতরের

প্রকাশ : ২৯ জুন ২০১৮, ১৪:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

গত ৮ জুন বৈঠক শেষে বেরিয়ে আসছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি এবং সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং লিয়াং। ছবি: ইরাবতি

মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠককালে দেশটির সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং লিয়াং অভ্যুত্থানের হুমকি দিয়েছেন বলে দাবি করেছে ব্যাংকক পোস্ট।

চলতি মাসে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর, ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং ডেপুটি সেনাপ্রধানও উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে থাইল্যান্ডভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি।

তবে  প্রেসিডেন্টের অফিসের ডিরেক্টর জেনারেল উ জাউ তে জানিয়েছেন, সেনাপ্রধান এ ধরনের কোনো হুমকি দেননি।

গত ২৩ জুন ব্যাংকক পোস্টে ল্যারি জাগানের লেখা ‘ইউএন এনভয় অ্যাভার্টস পসিবল মিলিটারি ক্যু ইন মিয়ানমার’ শিরোনামের একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়।

এতে বলা হয়েছে- স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির সঙ্গে বৈঠকে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা নিপীড়ন নিয়ে সরকারের ভূমিকায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানান সেনাপ্রধান। এতে তিনি নির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান করারও হুমকি দেন।

সেনাবাহিনীর উচ্চপর্যায়ের একাধিক অজ্ঞাতপরিচয় সূত্রের বরাতে এ দাবি করেন ল্যারি জাগান।

এমন সময় এই নিবন্ধ প্রকাশিত হলো যখন মিয়ানমারের সরকার ও সামরিক বাহিনীর মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে।

রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা নিপীড়নের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন এবং সেখানে একজন বিদেশি সদস্য রাখার যে সিদ্ধান্ত সরকার নিয়েছে, তার ফলেই সেনাবাহিনীর সঙ্গে তাদের দূরত্ব তৈরি হয়েছে।

১১ জুন মিয়ানমারের পার্লামেন্টের সামরিক বাহিনীর প্রতিনিধিরা তদন্ত কমিটিতে বিদেশি সদস্য রাখার ব্যাপারে আপত্তি জানান।

তারা দাবি করেন, এতে করে বিদেশিদের কাছে দেশ দুর্বল হয়ে পড়বে এবং দেশের সার্বভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়বে। সামরিক প্রতিনিধি হিসেবে তাদের মন্তব্যকে সেনাপ্রধানের বক্তব্যের প্রতিফলন হিসেবে দেখা যায়। সূত্র : সাউথ এশিয়ান মনিটর।