৫০ হাজার নারী সংসার হারানোর শঙ্কায়

প্রকাশ : ৩১ জুলাই ২০১৮, ১৯:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

আসামে সংসার ভাঙার আশঙ্কায় নারীরা

ভারতের আসামে সংসার হারানোর শঙ্কায় পড়েছে প্রায় ৬০ হাজার নারী। সম্প্রতি সেখানে নাগরিকদের তালিকা প্রকাশ করার পর এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে খবর প্রকাশ করেছে দেশটির প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

খবরে বলা হয়েছে, নাগরিকদের যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সেই তালিকা থেকে বাদ পড়েছে ৪৮ হাজার ৪৫৬ বিবাহিত নারী। 

পর্যাপ্ত কাগজপত্র বা লিংকেজ নথি (নাগরিকত্বের জন্য পৈতৃক বা বৈবাহিক প্রমাণপত্র) না থাকায় তাদের তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

যা বিয়ের পরে স্বামীর ঘরে এসে কিন্তু আগে কোথায় ছিলেন, জন্ম কোথায়, মা-বাবার নাম, ১৯৭১ সালের আগের এনআরসি বা ভোটার তালিকায় রয়েছে কি না এসব বিষয়েও প্রমাণপত্র চাওয়া হয়েছিল।

কিন্তু যেসব নারীরা বাদ পড়েছে তারা প্রাই সবাই গ্রামের এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের। যাদের বেশির ভাগই স্কুলে যায়নি বা সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে তাদের জন্ম হয়নি। ফলে তাদের কাছে প্রমাণপত্র নেই।

তবে ওইসব নারী স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের সার্টিফিকেট জমা দিলেও গৌহাটি হাইকোর্ট রায়ের কারণে তা গণ্য করা হয়নি।

মুসলিম সম্প্রদায়ের পাশাপাশি হিন্দু সম্প্রদায়ের বেশকিছু নারীর নামও তালিকায় স্থান পায়নি। বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার দিলীপকুমার পালের স্ত্রী অর্চনা পালের নাম তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য। 

নাগরিকের তালিকা থেকে বাদ পড়ায় এখন ওইসব নারী তাদের পরিবার ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কায় ভুগছেন।