পাকিস্তানে সরকার গঠন

সংরক্ষিত আসন পেতে পিটিআইয়ের নতুন পরিকল্পনা

 অনলাইন ডেস্ক 
১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকায় স্বতন্ত্র হয়ে নির্বাচনে লড়েছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত নেতারা। ইতোমধ্যেই পিটিআই চেয়ারম্যান গহর আলি খান জানিয়েছিলেন, কোনো দলে যোগ দেবেন না এসব স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। খবর ডনের

গহর বলেছিলেন, আমরা ওই দুই দলের (পিএমএল-এন ও পিপিপি) সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি না। তাদের সঙ্গে সরকার গঠনের চেয়ে জাতীয় পরিষদে বিরোধী ভূমিকায় থাকাও ভালো।

তবে নিয়মানুযায়ী কোনো দলের সঙ্গে যোগ না দিয়ে জাতীয় পরিষদে গেলে নারী ও অমুসলিমদের জন্য সংরক্ষিত আসন থেকে বঞ্চিত হবে পিটিআই। তাই তারা এবার কোনো একটি দলে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে সেই দল অবশ্যই পিএমএল-এন বা পিপিপি নয়।

এ বিষয়ে গহর আলি খান বলেন, সংরক্ষিত আসনগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই আসনগুলো  বাদ দিলে পিটিআইয়ের জন্য জাতীয় পরিষদে ভূমিকা রাখা কষ্টকর হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে মোট ২৬৬টি আসনে সরাসরি ভোট হয়। আর ৭০টি আসন সংরক্ষিত। এর মধ্যে নারীদের জন্য ৬০টি আসন ও সংখ্যালঘু অমুসলিমদের জন্য ১০টি আসন। 

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, কোন দলে যোগ দেবে পিটিআই সমর্থিত প্রার্থীরা। ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জামায়াতে ইসলামী (জেআই)বা মজিলস-ই-ওয়াহদাতুল মুসলিমিনে (এমডাব্লুএম) যোগ দিতে পারে পিটিআই। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন