খেলতে খেলতে মুরগির খাঁচা ধরল ২ শিশু, ১ শিশুর মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক    ১০ আগস্ট ২০১৮, ১২:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

নিহত শিশু ইন্দ্রাক্ষী ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু কৌশিক।
নিহত শিশু ইন্দ্রাক্ষী ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু কৌশিক। ছবি: জি-নিউজ

মুরগির ছানা দেখতে গিয়ে খাঁচা স্পর্শ করতেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ল দুই বছরের এক শিশু। হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে শিশুটির পাঁচ বছরের বড়ভাই। এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে ৭ আগস্ট ভারতের কুচবিহারের পুণ্ডিবাড়ি থানা এলাকার বানেশ্বর গ্রামে।

প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার বিকালেও পাঁচ বছর বয়সী কৌশিক তার দুই বছরের ছোট বোন ইন্দ্রাক্ষী সরকারকে নিয়ে মাঠে খেলছিল।

মাঠের পাশেই পোলট্রি ফার্ম। ছোট ছোট মুরগির ছানা দেখতে খুব ইচ্ছা তাদের। কিন্তু নোংরা আর জীবাণুর ভয় দেখিয়ে মায়ের কড়া নিষেধের কারণে এতদিন এ ফার্মের কাছে যায়নি শিশু দুটি।

কিন্তু গত মঙ্গলবার ভুল করে বসে তারা। এদিন মুরগির ছানা কাছ থেকে দেখার জন্য পোলট্রি ফার্মে ঢুকে পড়ে ভাইবোন।

মুরগির ছানাদের সঙ্গে তারা কথাও বলতে শুরু করে। কথা বলার ফাঁকেই ইন্দ্রাক্ষী ছুঁয়ে ফেলে মুরগির খাঁচা। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সে। বোনকে এভাবে লুটিয়ে পড়তে দেখে সাহায্য করতে কোলে তুলে নিতে যায় ভাই কৌশিক। সে নিজেও জ্ঞান হারায়।

এদিকে সন্তানরা অনেকক্ষণ বাড়ি ফিরছে না দেখে পোলট্রি ফার্মের কাছে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখে নির্বাক হয়ে পড়েন বাবা-মা।

দ্রুত স্থানীয় এমজেএন হাসপাতালে তাদের নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মেয়েটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ছেলেটির অবস্থা আশঙ্কাজনক।

চিকিৎসকরা বলেন, বিদ্যুৎস্পর্শ হয়ে মারা গেছে ইন্দ্রাক্ষী। ফার্মটির মালিক পোলট্রি ব্যবসায়ী ইন্দ্রজিৎ দাস চুরি ঠেকাতে মুরগির খাঁচায় বিদ্যুতের তার জড়িয়ে রেখেছিলেন।

এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। এভাবে খোলামেলা ও অসতর্কভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে রাখার কারণে ফার্ম মালিকের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করছেন এলাকাবাসী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×