বিক্ষোভে ফেটে পড়েন রোহিঙ্গা নারী-শিশুরাও

  যুগান্তর ডেস্ক ২৫ আগস্ট ২০১৮, ১৩:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

রোহিঙ্গা
বিক্ষোভে ফেটে পড়েন নারী-শিশুরাও-এএফপি

রাখাইনের মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নির্মূল অভিযানের বর্ষপূর্তির বিক্ষোভে ক্যাম্পের বিভিন্ন অংশে বিপুল সংখ্যক নারী ও শিশুদেরও অংশ নিতে দেখা গেছে। এ সময় তারা স্লোগান দেন, কান্নার ৩৬৫ দিন শেষ, এখন আমরা ক্ষুব্ধ।

রাখাইনের মিয়ানমারের হানাদার বাহিনীর হত্যা ও ধর্ষণের কথা স্মরণ করে সবার চোখ থেকেই পানি ঝরছিল। ওই সহিংসতায় প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন।

টেকনাফে রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরে সকাল ৯টায় প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। এতে হাজার হাজার শরণার্থী অংশ নেন। তাদের হাতে থাকা প্লেকার্ডে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যা ধর্ষণের বিবরণ তুলে ধরেন।

কুতুপালং ক্যাম্পের বিক্ষোভকারীরা স্লোগান দেন, আমরা রোহিঙ্গা, আমরা ন্যায়বিচার চাই। বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শরণার্থীরা পুরো ক্যাম্প প্রদক্ষিণ করেন।

বিক্ষোভ শেষে ইমাম যখন দোয়া পড়েন তখন সবার চোখ থেকে অঝোরে পানি ঝরতে দেখা গেছে। ইমাম বলেন, হে আল্লাহ, দয়া করে তুমি আমাদের মাতৃভূমিতে ফিরিয়ে নাও। আমাদের বাবা-মায়ের কবর দেখার সুযোগ করে দাও। আমরা তাদেরকে সেখানে ফেলে আসতে বাধ্য হয়েছি।

রোহিঙ্গারা নেতারা বলেন, নাগরিকত্ব ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তা না দেয়া হলে আমরা রাখাইনে ফিরব না।

আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটির প্রেসিডেন্ট পিটার মুরের বলেন, রাখাইন ও কক্সবাজার আশ্রয়শিবির ঘুরে আমরা ব্যাপক দুর্দশা দেখেছি। তারা অনেক দুঃখ কষ্টের মধ্যে বসবাস করছেন। তিনি এই সংকটের একটা স্থায়ী সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter