এক মাসের লকডাউনে সিঙ্গাপুর
jugantor
এক মাসের লকডাউনে সিঙ্গাপুর

  অনলাইন ডেস্ক  

০৩ এপ্রিল ২০২০, ১৯:২২:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

সিঙ্গাপুর

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো সিঙ্গাপুরও লকডাউনে যাচ্ছে। জরুরি সেবা ছাড়া স্কুলসহ বেশিরভাগ কর্মস্থল একমাসের জন্য বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি।

শুক্রবার সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং এক ঘোষণার মাধ্যমে এ কথা জানান।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটিতে আগামী ৭ এপ্রিল থেকে এ লকডাউন শুরু হবে। তবে স্কুল বন্ধ হলেও অনলাইনে ক্লাস শুরু হবে ৮ এপ্রিল থেকে।

লোকজনকে এ সময়ে বাড়িতে থাকা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। তিনি বলেন, শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্যই বের হওয়া যাবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ইতিমধ্যেই জেনেছি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না; তবুও ভাইরাসটি অন্যের মধ্যে ছড়ায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক পরিবারকে রোববার থেকে সার্জিক্যাল মাস্ক বিতরণ করা হবে।

এখন পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ১হাজার ১১৪ জনের শরীরে মিলেছে কোভিড-১৯। মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। আর শুক্রবারেই কেবল নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫ জন।

লকডাউনের সময়টিতে সিঙ্গাপুরে চালু থাকবে খাদ্য সরবরাহ, বাজার, সুপারমার্কেট, ক্লিনিক, হাসপাতাল, পরিবহন এবং ব্যাংক। দেশে এই সময়ে এমনকি এর পরবর্তী সময়ের জন্যও পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ রয়েছে বলে জনগণকে আশ্বস্ত করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

এক মাসের লকডাউনে সিঙ্গাপুর

 অনলাইন ডেস্ক 
০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৭:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সিঙ্গাপুর
ছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো সিঙ্গাপুরও লকডাউনে যাচ্ছে। জরুরি সেবা ছাড়া স্কুলসহ বেশিরভাগ কর্মস্থল একমাসের জন্য বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি।  

শুক্রবার সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং এক ঘোষণার মাধ্যমে এ কথা জানান।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটিতে আগামী ৭ এপ্রিল থেকে এ লকডাউন শুরু হবে। তবে স্কুল বন্ধ হলেও অনলাইনে ক্লাস শুরু হবে ৮ এপ্রিল থেকে।

লোকজনকে এ সময়ে বাড়িতে থাকা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। তিনি বলেন, শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের জন্যই বের হওয়া যাবে। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ইতিমধ্যেই জেনেছি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কোনো লক্ষণ প্রকাশ পায় না; তবুও ভাইরাসটি অন্যের মধ্যে ছড়ায়। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক পরিবারকে রোববার থেকে সার্জিক্যাল মাস্ক বিতরণ করা হবে।

এখন পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ১ হাজার ১১৪ জনের শরীরে মিলেছে কোভিড-১৯। মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। আর শুক্রবারেই কেবল নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫ জন।

লকডাউনের সময়টিতে সিঙ্গাপুরে চালু থাকবে খাদ্য সরবরাহ, বাজার, সুপারমার্কেট, ক্লিনিক, হাসপাতাল, পরিবহন এবং ব্যাংক। দেশে এই সময়ে এমনকি এর পরবর্তী সময়ের জন্যও পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ রয়েছে বলে জনগণকে আশ্বস্ত করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস