সাবেক আফগান ভাইস প্রেসিডেন্টের বিলাসবহুল প্রাসাদে তালেবান (ভিডিও)
jugantor
সাবেক আফগান ভাইস প্রেসিডেন্টের বিলাসবহুল প্রাসাদে তালেবান (ভিডিও)

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ আগস্ট ২০২১, ০৪:৩৬:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের সর্বশেষ গুরুত্বপূর্ণ শহর মাজার-ই-শরীফ দখলের পর সাবেক আফগান ভাইস প্রেসিডেন্টের বিলাসবহুল প্রাসাদে বন্দুকধারী তালেবান সদস্যদের বিশ্রাম নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

মার্কিন সরকারের অন্যতম মিত্র হিসেবে পরিচিত আব্দুল রাশিদ দুস্তমের বিলাসবহুল প্রাসাদের স্বর্ণের কারুকাজ করা আসবাবপত্রে বসে তালেবান সদ্যসের বিশ্রাম নেওয়ার ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

মাজার-ই-শরীফ তালেবান দখল নেওয়ার পর ওই অঞ্চলের দুজন কুখ্যাত শক্তিধর ব্যক্তির মধ্যে অন্যতম দুস্তম উজবেকিস্তানে সীমান্ত পেরিয়ে পালিয়ে যান।

৬৭ বছর বয়সী মিলিশিয়া নেতা দুস্তম এবং তার সহযোগী সাবেক গভর্নর আতা মোহাম্মদ নূর তালেবানের শত্রুদের মধ্যে অন্যতম। তারা দুজনই দেশটির চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ শহর মাজার-ই-শরীফ রক্ষার জন্য অঙ্গীকার করেছিলেন।

দুস্তম বলেছিলেন, তারা (তালেবান) কখনো পালাতে পারবে না। তাদের হত্যা করা হবে। আমি আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চল তালেবানের কবরস্থানে পরিণত করব।

বাস্তবে মাজার-ই-শরীফের পতনের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের সমগ্র উত্তরাঞ্চল তালেবানের দখলে চলে আসে।তবে দুস্তম আর আতা মোহাম্মদ নূর অক্ষত আছেন বলে টুইটারে জানিয়েছেন। ‘ষড়যন্ত্র’ এর কারণে মাজার-ই-শরীফের পতন হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

সাবেক আফগান ভাইস প্রেসিডেন্টের বিলাসবহুল প্রাসাদে তালেবান (ভিডিও)

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ আগস্ট ২০২১, ০৪:৩৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানের সর্বশেষ গুরুত্বপূর্ণ শহর মাজার-ই-শরীফ দখলের পর  সাবেক আফগান ভাইস প্রেসিডেন্টের বিলাসবহুল প্রাসাদে বন্দুকধারী তালেবান সদস্যদের বিশ্রাম নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

মার্কিন সরকারের অন্যতম মিত্র হিসেবে পরিচিত আব্দুল রাশিদ দুস্তমের বিলাসবহুল প্রাসাদের স্বর্ণের কারুকাজ করা আসবাবপত্রে বসে তালেবান সদ্যসের বিশ্রাম নেওয়ার ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

মাজার-ই-শরীফ তালেবান দখল নেওয়ার পর  ওই অঞ্চলের দুজন কুখ্যাত শক্তিধর ব্যক্তির মধ্যে অন্যতম দুস্তম উজবেকিস্তানে সীমান্ত পেরিয়ে পালিয়ে যান।

৬৭ বছর বয়সী মিলিশিয়া নেতা দুস্তম এবং তার সহযোগী সাবেক গভর্নর আতা মোহাম্মদ নূর তালেবানের  শত্রুদের মধ্যে অন্যতম। তারা দুজনই দেশটির চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ শহর মাজার-ই-শরীফ রক্ষার জন্য অঙ্গীকার করেছিলেন।

দুস্তম বলেছিলেন, তারা (তালেবান) কখনো পালাতে পারবে না। তাদের হত্যা করা হবে। আমি আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চল তালেবানের কবরস্থানে পরিণত করব।

বাস্তবে মাজার-ই-শরীফের পতনের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের সমগ্র উত্তরাঞ্চল তালেবানের দখলে চলে আসে। তবে দুস্তম আর আতা মোহাম্মদ নূর অক্ষত আছেন বলে টুইটারে জানিয়েছেন। ‘ষড়যন্ত্র’  এর কারণে মাজার-ই-শরীফের পতন হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান