এবার টেলিভিশনে মেয়েলি পুরুষের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করল চীন
jugantor
এবার টেলিভিশনে মেয়েলি পুরুষের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করল চীন

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১২:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনের জনগণের ওপর দফায় দফায় নতুন নিয়মনীতি জারি করছে শি জিনপিংয়ের সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় চীনের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে বড়সড় পরিবর্তন আনতে চলেছে দেশটির সরকার। টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে মেয়েলি পুরুষদের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে দেশটির সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বিনোদনে মেয়েলি পুরুষদের উপস্থাপন সমাজের তরুণ সম্প্রদায়ের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

কয়েকজন পপ তারকার ওপর এই বিধিনিষেধ জারি হবে বলে জানা গেছে। পপ তারকারা যথেষ্ঠ পুরুষালি নন বলে দাবি করেছে দেশটির সরকার।

একইসঙ্গে টেলিভিশন ও ইন্টারনেট তারকাদের অশ্লীল কন্টেন্ট প্রচারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

কয়েকদিন আগেই শিশুদের অনলাইন গেমের আসক্তি কমাতে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে চীন। ১৮ বছরের কম বয়সীদের সপ্তাহে তিন ঘণ্টার বেশি ভিডিও গেম খেলা নিষিদ্ধ করেছে দেশটি। নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে শিশু-কিশোরদের খেলার সুযোগ না দেওয়ার জন্য অনলাইন গেমিং কোম্পানিগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী সময়সীমা মানা হচ্ছে কী না দেখার জন্য অনলাইন গেমিং কোম্পানিগুলোর ওপর নজরদারিও বাড়ানো হবে বলে জানা গেছে।

চলতি বছরের জুলাই মাসে শতবর্ষ উদযাপন করেছে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি। দ্বিতীয় শতকে পদার্পন করার কয়েকদিন পরেই দলের নতুন কর্মসূচি নির্ধারণ করা হয়। দেশটির ১৪২ কোটি জনগণের চিন্তার ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের ঘোষণা দিয়েছে দলটি।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের নেতৃত্বাধীন দলটি জনগণের ওপর অনেক কঠোর বিধিনিষেধ চাপিয়ে দিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ক্রমাগত পশ্চিমা ধ্যান-ধারণার ‘অনুপ্রবেশ’ বন্ধ করার, কঠোর জাতীয়তাবাদ চাপিয়ে দেওয়ার এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করার অভিযোগ উঠেছে।

এবার টেলিভিশনে মেয়েলি পুরুষের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করল চীন

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনের জনগণের ওপর দফায় দফায় নতুন নিয়মনীতি জারি করছে শি জিনপিংয়ের সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় চীনের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে বড়সড় পরিবর্তন আনতে চলেছে দেশটির সরকার। টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে মেয়েলি পুরুষদের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে দেশটির সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বিনোদনে মেয়েলি পুরুষদের উপস্থাপন সমাজের তরুণ সম্প্রদায়ের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। 

কয়েকজন পপ তারকার ওপর এই বিধিনিষেধ জারি হবে বলে জানা গেছে। পপ তারকারা যথেষ্ঠ পুরুষালি নন বলে দাবি করেছে দেশটির সরকার।

একইসঙ্গে টেলিভিশন ও ইন্টারনেট তারকাদের অশ্লীল কন্টেন্ট প্রচারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 

কয়েকদিন আগেই শিশুদের অনলাইন গেমের আসক্তি কমাতে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে চীন। ১৮ বছরের কম বয়সীদের সপ্তাহে তিন ঘণ্টার বেশি ভিডিও গেম খেলা নিষিদ্ধ করেছে দেশটি।  নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে শিশু-কিশোরদের খেলার সুযোগ না দেওয়ার জন্য অনলাইন গেমিং কোম্পানিগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী সময়সীমা মানা হচ্ছে কী না দেখার জন্য অনলাইন গেমিং কোম্পানিগুলোর ওপর নজরদারিও বাড়ানো হবে বলে জানা গেছে।

চলতি বছরের জুলাই মাসে শতবর্ষ উদযাপন করেছে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি। দ্বিতীয় শতকে পদার্পন করার কয়েকদিন পরেই দলের নতুন কর্মসূচি নির্ধারণ করা হয়। দেশটির ১৪২ কোটি জনগণের চিন্তার ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের ঘোষণা দিয়েছে দলটি।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের নেতৃত্বাধীন দলটি জনগণের ওপর অনেক কঠোর বিধিনিষেধ চাপিয়ে দিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ক্রমাগত পশ্চিমা ধ্যান-ধারণার ‘অনুপ্রবেশ’ বন্ধ করার, কঠোর জাতীয়তাবাদ চাপিয়ে দেওয়ার এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করার অভিযোগ উঠেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন