শপথ অনুষ্ঠানে ট্রাম্প না থাকার ঘোষণায় কী বলছেন বাইডেন?
jugantor
শপথ অনুষ্ঠানে ট্রাম্প না থাকার ঘোষণায় কী বলছেন বাইডেন?

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৫৫:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্টেরশপথ অনুষ্ঠানে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টজো বাইডেন।

তিনি বলেছেন, ট্রাম্প যে আমার শপথ অনুষ্ঠানে আসছেন না সেটা ভালো খবর। এই একটা বিষয়েই তার (ট্রাম্প) সঙ্গে আমি একমত হতে পারছি। একটা ভাল খবর যে তার চেহারা দেখতে হবে না।

স্থানীয় সময় শুক্রবার তিনি উইলমিংটনে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। খবর সিএনএনের।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে বিদায়ী প্রেসিডেন্টের অংশগ্রহণকে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতীক হিসেবে দেখা হয়। তবে গত শুক্রবার ট্রাম্প এক টুইটে ঘোষণা দেন, তিনি বাইডেনের অভিষেকে যাবেন না। এধরনের ঘটনা সবশেষ দেখা গিয়েছিল ১৮৬৯ সালে। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রু জনসন তার উত্তরসূরীর অভিষেকে অংশ নেননি।

বাইডেন জানিয়েছেন, ট্রাম্প অনুষ্ঠানে অংশ না নিলেও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে আগামী ২০ জানুয়ারির ওই অনুষ্ঠানে সসম্মানে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন এ ডেমোক্র্যাট নেতা।

বাইডেন বলেন, ভাইস প্রেসিডেন্টকে আসার জন্য স্বাগতম, তাকে পেলে আমি নিজেকে সম্মানিত বোধ করব।

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আবারও অভিশংসনের মুখে ফেলার খবরের ব্যাপারে বাইডেন বলেন, ট্রাম্প তার সম্পর্কে আমার খারাপ ধারণাকেও ছাড়িয়ে গেছেন। তিনি দেশের জন্য লজ্জা, গোটা বিশ্বের জন্য লজ্জা। তিনি অফিসে থাকার উপযুক্ত নন।

শপথ অনুষ্ঠানে ট্রাম্প না থাকার ঘোষণায় কী বলছেন বাইডেন?

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৪:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ফাইল ছবি
নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানে না যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  ওই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। 

তিনি বলেছেন, ট্রাম্প যে আমার শপথ অনুষ্ঠানে আসছেন না সেটা ভালো খবর।  এই একটা বিষয়েই তার (ট্রাম্প) সঙ্গে আমি একমত হতে পারছি। একটা ভাল খবর যে তার চেহারা দেখতে হবে না। 

স্থানীয় সময় শুক্রবার তিনি উইলমিংটনে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। খবর সিএনএনের।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে বিদায়ী প্রেসিডেন্টের অংশগ্রহণকে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতীক হিসেবে দেখা হয়।  তবে গত শুক্রবার ট্রাম্প এক টুইটে ঘোষণা দেন, তিনি বাইডেনের অভিষেকে যাবেন না।  এধরনের ঘটনা সবশেষ দেখা গিয়েছিল ১৮৬৯ সালে। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রু জনসন তার উত্তরসূরীর অভিষেকে অংশ নেননি।

বাইডেন জানিয়েছেন, ট্রাম্প অনুষ্ঠানে অংশ না নিলেও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে আগামী ২০ জানুয়ারির ওই অনুষ্ঠানে সসম্মানে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন এ ডেমোক্র্যাট নেতা।  

বাইডেন বলেন, ভাইস প্রেসিডেন্টকে আসার জন্য স্বাগতম, তাকে পেলে আমি নিজেকে সম্মানিত বোধ করব।

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আবারও অভিশংসনের মুখে ফেলার খবরের ব্যাপারে বাইডেন বলেন, ট্রাম্প তার সম্পর্কে আমার খারাপ ধারণাকেও ছাড়িয়ে গেছেন।  তিনি দেশের জন্য লজ্জা, গোটা বিশ্বের জন্য লজ্জা। তিনি অফিসে থাকার উপযুক্ত নন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০