সালবুটামল বা ইনহেলার ব্যবহার করলে কি রোজা ভেঙে যাবে?
jugantor
সালবুটামল বা ইনহেলার ব্যবহার করলে কি রোজা ভেঙে যাবে?

  মুফতি সাদেকুর রহমান  

১৭ এপ্রিল ২০২২, ১২:৫৬:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

সালবুটামল, ইনহেলার ব্যবহার করলে রোজা ভেঙে যাবে। শ্বাসকষ্ট দূর করার জন্য ওষুধটি মুখের ভেতর স্প্রে করা হয়। এতে যে জায়গায় শ্বাসরুদ্ধ হয় ওই জায়গাটি প্রশস্ত হয়ে যায়। ফলে শ্বাস চলাচলে আর কোনো কষ্ট থাকে না।

উল্লেখ্য, ওষুধটি যদিও স্প্রে করার সময় গ্যাসের মতো দেখা যায়, কিন্তু বাস্তবে তা তরল ওষুধ। অতএব মুখের ভেতর স্প্রে করার দ্বারা রোজা ভেঙে যাবে। বিষয়টি নিয়ে কিছুটা মতানৈক্য থাকলেও বিশুদ্ধ মত এটিই।

হ্যাঁ, মুখে ইনহেলার স্প্রে করার পর না গিলে যদি থুতু দিয়ে তা বাইরে ফেলে দেওয়া হয়, তা হলে রোজা ভাঙবে না।

(ইসলাম ও আধুনিক চিকিৎসা পৃষ্ঠা: ৩২৪ মাজাল্লাতু মাজমাআইল ফিকহিল ইসলামি, খণ্ড-১০ ভলিউম- ২. পৃষ্ঠা: ৩১-৬৫)

রোজা অবস্থায় ইনহেলার ব্যবহার করার নিয়ম

অনেক অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ হলো, সেহরিতে এক ডোজ ইনহেলার নেওয়ার পর ইফতার পর্যন্ত আর ইনহেলার নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না । তাই এভাবে ইনহেলার ব্যবহার করে রোজা রাখার চেষ্টা করতে হবে।

যদি কারও বক্ষব্যাধি এমন জটিল ও মারাত্মক আকার ধারণ করে যে, ইনহেলার নেওয়া ব্যতীত ইফতার পর্যন্ত অপেক্ষা করা সম্ভব নয়, তাদের জন্য শরিয়তে সুযোগ আছে, তারা প্রয়োজন অনুযায়ী ইনহেলার ব্যবহার করবে ও পরে রোজার কাজা করে নেবে । আর কাজা সম্ভব না হলে ফিদিয়া আদায় করবে। (ইসলাম ও আধুনিক চিকিৎসা, ৩২৪)

সালবুটামল বা ইনহেলার ব্যবহার করলে কি রোজা ভেঙে যাবে?

 মুফতি সাদেকুর রহমান 
১৭ এপ্রিল ২০২২, ১২:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সালবুটামল, ইনহেলার ব্যবহার করলে রোজা ভেঙে যাবে। শ্বাসকষ্ট দূর করার জন্য ওষুধটি মুখের ভেতর স্প্রে করা হয়। এতে যে জায়গায় শ্বাসরুদ্ধ হয় ওই জায়গাটি প্রশস্ত হয়ে যায়। ফলে শ্বাস চলাচলে আর কোনো কষ্ট থাকে না। 

উল্লেখ্য, ওষুধটি যদিও স্প্রে করার সময় গ্যাসের মতো দেখা যায়, কিন্তু বাস্তবে তা তরল ওষুধ। অতএব মুখের ভেতর স্প্রে করার দ্বারা রোজা ভেঙে যাবে। বিষয়টি নিয়ে কিছুটা মতানৈক্য থাকলেও বিশুদ্ধ মত এটিই। 

হ্যাঁ, মুখে ইনহেলার স্প্রে করার পর না গিলে যদি থুতু দিয়ে তা বাইরে ফেলে দেওয়া হয়, তা হলে রোজা ভাঙবে না। 

(ইসলাম ও আধুনিক চিকিৎসা পৃষ্ঠা: ৩২৪ মাজাল্লাতু মাজমাআইল ফিকহিল ইসলামি, খণ্ড-১০ ভলিউম- ২. পৃষ্ঠা: ৩১-৬৫)

রোজা অবস্থায় ইনহেলার ব্যবহার করার নিয়ম

অনেক অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ হলো, সেহরিতে এক ডোজ ইনহেলার নেওয়ার পর ইফতার পর্যন্ত আর ইনহেলার নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না । তাই এভাবে ইনহেলার ব্যবহার করে রোজা রাখার চেষ্টা করতে হবে। 

যদি কারও বক্ষব্যাধি এমন জটিল ও মারাত্মক আকার ধারণ করে যে, ইনহেলার নেওয়া ব্যতীত ইফতার পর্যন্ত অপেক্ষা করা সম্ভব নয়, তাদের জন্য শরিয়তে সুযোগ আছে, তারা প্রয়োজন অনুযায়ী ইনহেলার ব্যবহার করবে ও পরে রোজার কাজা করে নেবে । আর কাজা সম্ভব না হলে ফিদিয়া আদায় করবে।  (ইসলাম ও আধুনিক চিকিৎসা, ৩২৪) 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন