ঈদের পয়গাম
jugantor
ঈদের পয়গাম

  মূল: মওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খান, তর্জমা: মওলবি আশরাফ  

০৩ মে ২০২২, ০৯:২১:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

ঈদ মোবারক। ঈদ আমাদের জন্য বয়ে আনে নতুন জীবনের বারতা। রোজার উদ্দেশ্য ছিল মানুষকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য দুনিয়া ও দুনিয়াবি জিনিস থেকে বিচ্ছিন্ন করে পুরোপুরি আল্লাহর প্রতি আগ্রহী করে তোলা। আর ঈদ এই সুসংবাদ দেয় যে মানুষের জন্য আল্লাহকে পাওয়া, জান্নাতের পথে চলা সম্ভব।

আত্মশুদ্ধি, ধৈর্য ও আল্লাহর সাথে একাত্ম হওয়ার যে প্রশিক্ষণ আমরা রমজানের দিনগুলোতে পেয়েছি, আমরা চাইলে জীবনের প্রত্যেকদিনই তা কাজে লাগাতে পারি।

যেভাবে রোজা কেবল না খেয়ে ও পান না করে থাকার নাম নয়, ঠিক সেভাবেই ঈদ কেবল আনন্দ-ফূর্তির নাম নয়। রোজার মাস আল্লাহর নৈকট্য ও তরবিয়ত অর্জনের মাস, আর ঈদ হলো রোজা থেকে পাওয়া জিনিস কাজে লাগানোর শুভসূচনা।

এক বুজুর্গ বলেছিলেন, ‘তার জন্য ঈদ নয় যে নতুন কাপড় পরে, বরং প্রকৃত ঈদ কেবল এমন মানুষের জন্যই—যিনি কেয়ামতের দিন খোদার পাকড়াও থেকে নিজেকে হেফাজত করার বন্দোবস্ত করেন।

ঈদের দিন যেন আমরা নতুন করে ঈমানি শক্তিতে বলীয়ান হয়ে, ইয়াকিন ও বিশ্বাসের নতুন স্পৃহায় জীবনযুদ্ধে নামতে পারি। আমাদের দিল যেন খোদার নুরে আলোকময় থাকে।

রোজা ধৈর্য ও আল্লাহর সাথে একাত্ম হওয়ার যে শক্তি দান করেছে, তা যেন সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারি। এবং আখেরাতের মঞ্জিল যেন চিরকালীন আনন্দ-সুখের বানাতে পারি, এটাই একমাত্র কামনা। আল্লাহ কবুল করুন। আমিন।

ঈদের পয়গাম

 মূল: মওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খান, তর্জমা: মওলবি আশরাফ 
০৩ মে ২০২২, ০৯:২১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঈদ মোবারক। ঈদ আমাদের জন্য বয়ে আনে নতুন জীবনের বারতা। রোজার উদ্দেশ্য ছিল মানুষকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য দুনিয়া ও দুনিয়াবি জিনিস থেকে বিচ্ছিন্ন করে পুরোপুরি আল্লাহর প্রতি আগ্রহী করে তোলা। আর ঈদ এই সুসংবাদ দেয় যে মানুষের জন্য আল্লাহকে পাওয়া, জান্নাতের পথে চলা সম্ভব। 

আত্মশুদ্ধি, ধৈর্য ও আল্লাহর সাথে একাত্ম হওয়ার যে প্রশিক্ষণ আমরা রমজানের দিনগুলোতে পেয়েছি, আমরা চাইলে জীবনের প্রত্যেকদিনই তা কাজে লাগাতে পারি। 

যেভাবে রোজা কেবল না খেয়ে ও পান না করে থাকার নাম নয়, ঠিক সেভাবেই ঈদ কেবল আনন্দ-ফূর্তির নাম নয়। রোজার মাস আল্লাহর নৈকট্য ও তরবিয়ত অর্জনের মাস, আর ঈদ হলো রোজা থেকে পাওয়া জিনিস কাজে লাগানোর শুভসূচনা। 

এক বুজুর্গ বলেছিলেন, ‘তার জন্য ঈদ নয় যে নতুন কাপড় পরে, বরং প্রকৃত ঈদ কেবল এমন মানুষের জন্যই—যিনি কেয়ামতের দিন খোদার পাকড়াও থেকে নিজেকে হেফাজত করার বন্দোবস্ত করেন। 

ঈদের দিন যেন আমরা নতুন করে ঈমানি শক্তিতে বলীয়ান হয়ে, ইয়াকিন ও বিশ্বাসের নতুন স্পৃহায় জীবনযুদ্ধে নামতে পারি। আমাদের দিল যেন খোদার নুরে আলোকময় থাকে। 

রোজা ধৈর্য ও আল্লাহর সাথে একাত্ম হওয়ার যে শক্তি দান করেছে, তা যেন সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারি। এবং আখেরাতের মঞ্জিল যেন চিরকালীন আনন্দ-সুখের বানাতে পারি, এটাই একমাত্র কামনা। আল্লাহ কবুল করুন। আমিন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর