‘মানবিক বিশ্ব গড়তে প্রিয় নবীর আদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ জরুরি’
jugantor
‘মানবিক বিশ্ব গড়তে প্রিয় নবীর আদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ জরুরি’

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ জুলাই ২০২২, ২২:২০:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

‘মানবিক বিশ্ব গড়তে প্রিয় নবীর আদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ জরুরি ’

মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী মাইজভাণ্ডারী বলেছেন, অশান্তির কালো মেঘ সরিয়ে শান্তিপূর্ণ সম্প্রীতিময় মানবিক সমাজ ও বিশ্ব গড়ার মিশন নিয়ে আবির্ভূত হয়েছেন রাহমাতুল্লিল আ’লামিন হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (সা.)। প্রিয়নবীর সংস্পর্শে ও সান্নিধ্যের বদৌলতে আরবের সবচেয়ে বর্বর মানুষেরা দলে দলে ইসলামের দিকে ফিরে এসেছিল।

তিনি বলেন, আজকের কথিত সভ্য দুনিয়ায় মানুষের বস্তুগত উন্নতি হলেও জাহেলিয়াতের কালো ছায়া এখনো রয়ে গেছে। হানাহানি সংঘাতে দেশে দেশে মানুষ আজ দুর্বিষহ অবস্থার মুখোমুখি। বিশ্বের নানা প্রান্তে রক্তের বন্যা বইয়ে দিচ্ছে আধিপত্যবাদী বিশ্ব মোড়লরা।

রোববার দলের লন্ডন শাখা আয়োজিত ইস্টহাম অ্যারোমা এসপ্রেসো হলে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী বলেন, সংঘাতমুক্ত সম্প্রীতিপূর্ণ মানবিক বিশ্ব সমাজ গড়ার ক্ষেত্রে প্রিয়নবীর (সা.) জীবনাদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ আজ অনিবার্য হয়ে উঠেছে। বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় প্রিয়নবীর প্রদর্শিত মদিনার সনদ অনুসরণের বিকল্প নেই। মানবিক বিশ্ব গড়তে সত্যান্বেষী-শান্তিকামী মানুষের মধ্যে ঐক্য-সংহতি ও সম্প্রীতিবোধ জোরদার করতে হবে। এটাই প্রিয়নবীর শিক্ষা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোহাম্মদ হাদী খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন মইনিয়া যুব ফোরামের নির্বাহী সভাপতি শাহজাদা সাইয়্যিদ মাশুক-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী, মাওলানা শফিকুর রহমান বিপ্লবী।


‘মানবিক বিশ্ব গড়তে প্রিয় নবীর আদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ জরুরি’

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ জুলাই ২০২২, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘মানবিক বিশ্ব গড়তে প্রিয় নবীর আদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ জরুরি ’
লন্ডনের ইস্টহাম অ্যারোমা এসপ্রেসো হলে বক্তব্য রাখছেন সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী মাইজভাণ্ডারী ছবি: সংগৃহীত

মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী মাইজভাণ্ডারী বলেছেন, অশান্তির কালো মেঘ সরিয়ে শান্তিপূর্ণ সম্প্রীতিময় মানবিক সমাজ ও বিশ্ব গড়ার মিশন নিয়ে আবির্ভূত হয়েছেন রাহমাতুল্লিল আ’লামিন হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (সা.)। প্রিয়নবীর সংস্পর্শে ও সান্নিধ্যের বদৌলতে আরবের সবচেয়ে বর্বর মানুষেরা দলে দলে ইসলামের দিকে ফিরে এসেছিল। 

তিনি বলেন, আজকের কথিত সভ্য দুনিয়ায় মানুষের বস্তুগত উন্নতি হলেও জাহেলিয়াতের কালো ছায়া এখনো রয়ে গেছে। হানাহানি সংঘাতে দেশে দেশে মানুষ আজ দুর্বিষহ অবস্থার মুখোমুখি। বিশ্বের নানা প্রান্তে রক্তের বন্যা বইয়ে দিচ্ছে আধিপত্যবাদী বিশ্ব মোড়লরা। 

রোববার দলের লন্ডন শাখা আয়োজিত ইস্টহাম অ্যারোমা এসপ্রেসো হলে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাইফুদ্দীন আহমদ আল-হাসানী বলেন, সংঘাতমুক্ত সম্প্রীতিপূর্ণ মানবিক বিশ্ব সমাজ গড়ার ক্ষেত্রে প্রিয়নবীর (সা.) জীবনাদর্শের পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ আজ অনিবার্য হয়ে উঠেছে। বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় প্রিয়নবীর প্রদর্শিত মদিনার সনদ অনুসরণের বিকল্প নেই। মানবিক বিশ্ব গড়তে সত্যান্বেষী-শান্তিকামী মানুষের মধ্যে ঐক্য-সংহতি ও সম্প্রীতিবোধ জোরদার করতে হবে। এটাই প্রিয়নবীর শিক্ষা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোহাম্মদ হাদী খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন মইনিয়া যুব ফোরামের নির্বাহী সভাপতি শাহজাদা সাইয়্যিদ মাশুক-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী, মাওলানা শফিকুর রহমান বিপ্লবী। 


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন