•       কুড়িগ্রামের মোগলবাসায় মৌমাছির কামড়ে ৩৭ জন পিইসি শিক্ষার্থীসহ আহত অর্ধশতাধিক
চট্টগ্রাম ব্যুরো    |    
প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
দরবার শরিফের টাকা লুট
র‌্যাব কর্মকর্তা জুলফিকারসহ সাত আসামির বিচার শুরু
চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার চাঞ্চল্যকর তালসরা দরবার শরিফের টাকা লুটের ঘটনায় র‌্যাব-৭ এর সাবেক অধিনায়ক লে. কর্নেল (চাকরিচ্যুত) জুলফিকার আলী মজুমদারসহ সাত আসামির বিচার শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার চট্টগ্রামের পঞ্চম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ নূরে আলম তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এ মামলার বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছেন। অন্য আসামিরা হলেন- র‌্যাব-৭ এর তৎকালীন ফ্লাইট লে. শেখ মাহমুদুল হাসান (বাধ্যতামূলক ছুটি), র‌্যাব-৭ এর সাবেক ডিএডি আবুল বাশার, এসআই তরুণ কুমার বসু, র‌্যাবের তিন সোর্স-দিদারুল আলম ওরফে দিদার, আনোয়ার মিয়া ও মানব বড়ুয়া।
চট্টগ্রাম জেলা পিপি একেএম সিরাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, জামিনে থাকা সাত আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আইনি বাধা দূর হওয়ার পর চাঞ্চল্যকর এ মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ও বিচার কার্যক্রম শুরু হল। আগামী ২৩ অক্টোবর সাক্ষ্যগ্রহণের পরবর্তী তারিখ ধার্য করা হয়েছে।
২০১১ সালে ৪ সেপ্টেম্বর রাতে তালসরা দরবার শরিফে অভিযানের নামে র‌্যাবের একটি দল দুই কোটি সাত হাজার টাকা লুট করে। ঘটনার প্রায় সাত মাস পর ২০১২ সালের ১৩ মার্চ দরবারের গাড়িচালক মো. ইদ্রিস ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ২০১২ সালের মে মাসের প্রথম সপ্তাহে ঢাকার মগবাজার থেকে গ্রেফতার হন জুলফিকার আলী। একই বছর ২৬ জুলাই জুলফিকারসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়া হয়। ৩০ জুলাই অভিযোগপত্রটি আদালতে নথিভুক্ত হয় এবং ২৮ আগস্ট গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু হাইকোর্টের আদেশে মামলাটির কার্যক্রম চার বছর বন্ধ ছিল।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত