ইফতারে অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পানে ঘটতে পারে বড় বিপদ

  যুগান্তর ডেস্ক ১০ মে ২০১৯, ১৭:২১ | অনলাইন সংস্করণ

ঠাণ্ডা পানি।
ঠাণ্ডা পানি। ছবি সংগৃহীত

চলছে পবিত্র মাহে রমজান। তার ওপরে অসহ্য গরম। গরমে অতিষ্ঠ মানুষ। গরমে ঘরে-বাইরে হাঁসফাঁস অবস্থা। অতিরিক্ত গরমে ঠাণ্ডা পানি খাওয়ার চাহিদা থাকে বেশিরভাগ মানুষের। ঘরে ফিরেই ফ্রিজ খুলে ঠাণ্ডা পানি বের করে পান করেন।

আর রমজানে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে শরবত বানানো থেকে শুরু করে খেয়েও থাকি আমরা। এছাড়া শীত ছাড়া গরমে সারা বছর ঠাণ্ডা পানি পান করে থাকেন অনেকে। তবে আপনি জানেন কি? এই ঠাণ্ডা পানি পান করার অভ্যাস ডেকে আনতে পারে ভয়াবহ বিপদ।

আসুন জেনে মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে যেসব ভয়াবহ বিপদ হতে পারে।

শ্বাসনালীতে সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাওয়ার পরে ঠাণ্ডা পানি পান করা ঠিক নয়। ঠাণ্ডা পানি শ্বাসনালীতে অতিরিক্ত পরিমাণে শ্লেষ্মার আস্তরণ তৈরি হয়, যা থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

রক্তনালী সংকুচিত

প্রতিনিয়ত মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে পড়ে ও স্বাভাবিক পরিপাক ক্রিয়াও বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে হজমের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।

হজম সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, ওয়ার্কআউটের পর ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে কুসুম গরম পানি পান করলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর ও শরীরচর্চা করার পর ঠাণ্ডা পানি একেবারেই পান করা যাবে না। কারণ ঘণ্টাখানেক শরীরচর্চা করার পর শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটা বেড়ে যায়। এ সময় ঠাণ্ডা পানি পান করলে হজমের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁতে

ঠাণ্ডা পানি পান করলে ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁত। দন্ত চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে দাঁতের ভেগাস স্নায়ুর ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। ফলে আমাদের হৃদযন্ত্রের গতি অনেকটা কমে যেতে পারে।

তাই ঠাণ্ডা পানি পানের অভ্যাস থাকলে ত্যাগ করুন।

সূত্র: জিনিউজ

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×