কতক্ষণ হাঁটলে ওজন কমবে?

  ডা. এম ইয়াছিন আলী ০৯ জুন ২০১৯, ২২:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

কতক্ষণ হাঁটলে ওজন কমে।
কতক্ষণ হাঁটলে ওজন কমে। ছবি সংগৃহীত

সকালে বাসা থেকে বের হয়ে গাড়িতে বা রিকশায় উঠে অফিসে যাচ্ছি, অফিসে ডেক্সে বসে কম্পিউটার বা লেখালেখি তারপর অফিস থেকে গাড়িতে উঠে জামের কারণে দুই থেকে তিন ঘণ্টা গাড়িতে বসে ক্লান্ত হয়ে বাসায় ফিরে ক্ষুধার্ত উদর ভর্তি করে খাবার খেয়ে, মোবাইল বা ল্যাপটপে কিছুক্ষণ ফেসবুকিং করে বিছানায় ঘুমাতে যাওয়া।

তাই দৈনন্দিন শারীরিক কার্যক্রম হচ্ছে না বললেই চলে। যার ফলে শরীরে বাসা বাঁধছে বিভিন্ন অসুখ বিসুখ যেমন- ডায়বেটিস, উচ্চরক্তচাপ, আথ্র্রাইটিস, ওবেসিটি বা স্থুলতা, মাংসপেশির শক্তি কমে যাওয়া, অষ্ঠিওপোরোসিস বা হাড়ের ভঙ্গুরতা ইত্যাদি।

প্রতিদিন অন্তত ৪৫ মি. হাঁটি অথবা ৪৫ মি. ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ বা ব্যায়াম করি অথবা সুযোগ থাকলে ৪৫ মি. সাঁতার কাটি অথবা সময় না পেলে অফিস থেকে বাসা কাছাকাছি হলে ফেরার সময় গাড়িতে না উঠে হেঁটে হেঁটে বাসায় ফিরলেন তাহলে অন্তত কিছুটা হলেও ফিজিক্যাল একটিভিটি বাড়ল যা আপনাকে নিরোগ রাখতে সাহায্য করবে।

নিয়মিত হেঁটেই নিজেকে সুস্থ রাখতে পারেন আপনি। শরীর ভালো রাখতে হলে নিয়মিত হাঁটার বিকল্প নেই। নিয়মিত হাঁটা শরীরের অনেক রোগ-বালাই দূর করে, শরীর সতেজ ও চাঙা রাখে। এছাড়া আপনার ওজনও কমবে।

তবে মন না চাইলে বা অসুস্থ থাকলে জোর করে না হাঁটতে পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। অনেকে মনে প্রশ্ন আসতে পারে, কখন হাঁটবেন, কত সময় হাঁটবেন, হাঁটার গতি কেমন হবে ইত্যাদি।

কখন হাঁটবেন :

২৪ ঘণ্টার মধ্যে আপনি হাঁটার জন্য সময় বের করে নিতে পারেন। তবে হাঁটার জন্য সবচেয়ে ভালো সময় সকাল আর বিকেল। তবে হার্টের রোগীরা কখনও সকালে হাঁটবেন না। কারণ হার্টের রোগীরা সকালে হাঁটলে হার্ট অ্যাটক হওয়ার সম্ভবনা থাকে।

কত সময় হাঁটবেন :

প্রতিদিন কমপক্ষে ৪০ থেকে ৪৫ মিনিট হাঁটুন। এছাড়া যদি হাঁটতে ভালো লাগে তবে হাঁটার সময়টা ১ ঘণ্টা পর্যন্তও হতে পারে। এছাড়া যারা বেশি হাঁটতে পারে না তারা ওই ৪০ মিনিট হাঁটার সময়ে ১০ মিনিটের বিরতি দিতে পারেন। পাঁচ দিন ৩০ মিনিট করে ১৫০ মিনিট হাঁটলেও আপনি সুস্থ থাকবেন।

তবে কখনোই ৩০ মিনিটের কম হাঁটা উচিত হবে না।

হাঁটার গতি কেমন হবে :

হাঁটার সময় অনেকে বুঝতে পারেন না যে, হাঁটার গতি কেমন হবে। তবে হাঁটার জন্য তেমন নির্দিষ্ট কোনো গতি নেই। প্রথমে ধীরে ধীরে হাঁটা শুরু করার পর আস্তে আস্তে গতি বাড়াতে হবে। শরীরের সঙ্গে তাল মিলিয়ে যতটুকু পারা যায় গতি বাড়াতে হবে।

ঘুম থেকে উঠেই হাঁটবেন না :

অনেকে ঘুম থেকে উঠেই হাঁটতে শুরু করেন। এটি মোটেই ঠিক নয়। ঘুম থেকে ওঠার কমপক্ষে ৩০ মিনিট পর হাঁটতে বের হওয়া উচিত। কারও যদি সকালে অফিসে যাওয়ার তাড়া থাকে তাহলে ঘুম থেকে একটু আগে ওঠার অভ্যাস করুন।

খাওয়ার আগে ও পরে :

খাওয়ার ঠিক আগে বা খাওয়া শেষ করেই হাঁটা উচিত না। যারা সকাল, বিকেল বা সন্ধ্যার পর হাঁটতে সময় পান না, তারা তিনবেলা খাওয়ার পর ১০ মিনিট করে হাঁটতে পারেন। এ সময় হাঁটতে পারলে শরীরের জন্য বেশ উপকার হয়। সুগার ও ব্লাডপ্রেশার নিয়ন্ত্রণ রাখতে সাহায্য করে খাওয়ার পর ১০ মিনিট হাঁটা।

জোর করে হাঁটা ঠিক নয় : হাঁটার কোনো বিকল্প নেই। তবে মন না চাইলে জোর করে হাঁটা উচিত নয়। তবে সুস্থ থাকতে হলে হাঁটতে হবেই।

ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞ , চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালটেন্ট, ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল, ধানমণ্ডি, ঢাকা।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×