সেলফি রোগে অকাল মৃত্যু, বাঁচতে কী করবেন?

  লাইফস্টাইল ডেস্ক ৩০ Jun ২০১৯, ১৬:১৭:২১ | অনলাইন সংস্করণ

সেলফি তুলছেন এক নারী। ছবি সংগৃহীত

রাগ, বিষাদ ও প্রেম সব কিছুই এখন খুব সহজে জানা যায় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। তবে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় মধ্যে ফেসবুক এখন খুবই জনপ্রিয়।ফেসবুকে অনেকে সেলফি দিয়ে স্ট্যাটাস দিতে দেখা যায়।

পছন্দমত ছবি তোলা ও পোস্ট করা এখন রীতিমত নেশা রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে।এই সেলফি তুলেতে গিয়ে অনেকের অকাল মৃত্যু হচ্ছে। যত্রতত্র সেলফি তোলার কারণে সারা বিশ্বের মারা যাচ্ছে অনেক মানুষ্।

২০১১ অক্টোবর থেকে ২০১৭ সালের নভেম্বর পর্যন্ত শুধুমাত্র সেলফি তুলতে গিয়ে বিশ্বে মৃত্যু হয়ছে ২৫৯ জনের।

ভারতের ‘জার্নাল অব ফ্যামিলি মেডিসিন অ্যান্ড প্রাইমারি কেয়ার’-এর সমীক্ষা ও তার ফল অনুযায়ী, ওই সময়ে পৃথিবীতে হাঙরের কামড়ে মৃত্যু হয়েছে ৫০ জনের। তবে সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে তার চেয়ে পাঁচ গুণ বেশি মানুষের।

গত ১০ বছরে এই ‘অসুখ’ আরও বেড়েছে বলেই মত মনোবিদদের। তবে নারীদের এই রোগের প্রবণতা সবচেয়ে বেশি।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, পুরুষদের মধ্যেও এই আসক্তি রয়েছে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নারীদের ছবি তুলতে গিয়ে তাদের মৃত্যু হচ্ছে।

সেলফি রোগ থেকে বাঁচতে কী করবেন?

সেলফি তুলতে গিয়ে অনেকে মৃত্যু হচ্ছে। তাই এ বিষয়ে কিছু সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।

১. কীভাবে ভালো সেলফি তো যায় তার জন্য আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইট সাহায্যে নিতে পারেন।

৩. সেলফি তোলার জন্য শুধু স্টিক’ নয়,নিজস্বী তোলার জন্য বিশেষ জুতোও পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। সেলফি-ফ্রেন্ডলি হওয়ার উপরেই স্মার্টফোনের বিক্রি বাড়ছে। ইতিমধ্যে ইউরোপে ‘সেলফি স্টিক’ কে ‘নার্সিসাস স্টিক’ বলেও ডাকা হচ্ছে।

৪. ঝুঁকিপূর্ণ জায়গায় দাড়িয়ে সেলফি তোলা থেকে বিরত থাকুন।

৫. গাড়ি চালানোর সময় সেলফি তুলবেন না।

তবে সেলফি তুলতে গিয়ে যে মৃত্যু হচ্ছে তা ঠেকাতে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন সচেতনতা।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত