বার্গার খেলে হতে পারে ভয়াবহ ২ রোগ

প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

বার্গার। ছবি সংগৃহীত

বার্গারের নাম শুনলে জিভে জল এসে যায়। অনেক প্রিয় এই খবারটি স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এই বার্গার প্রতিদিন নয় মাঝেমধ্যে খেলেও শরীরের জন্য এই খাবার ক্ষতিকর।

স্বাস্থ্যের জন্য এই খাবার খারাপ জেনেও অনেক তা খেয়ে যাচ্ছে। আপনি জানেন না যে এই খাবার খেলে ভয়াবহ দুই রোগ হতে পারে। এই রোগ দুটি আমাদের খুবই পরিচিত। এই দুই রোগে অনেক মানুষ মারা যায় প্রতি বছর। এই দুটি রোগ হলো ডায়বেটিস ও হৃদরোগ। বার্গার খেলে ডায়বেটিস ও হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন এমনি তথ্য জানানো হয়েছে। 

পুষ্টিবিজ্ঞানের তথ্যানুসারে,  প্রতিটি ‘জাঙ্কফুড’ ক্যালরি,  চর্বি আর বাড়তি সোডিয়াম মাত্রা এতই বেশি যে মাঝেমধ্যে খা্ওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিরক।

একটি বার্গারের প্রায় ৫০০ ক্যালরি, ২৫ গ্রাম চর্বি, ৪০ গ্রাম কার্বোহাইড্রেইট, ১০ গ্রাম চিনি আর ১০০০ মি.লি.গ্রাম সোডিয়াম। এই উপাদানগুলো একজন মানুষ খেলে হঠাৎ করেই অসুস্থ হ্ওয়ার জন্য যথেষ্ঠ।

আসুন জেনে নেই বর্গার খেলে শরীরে যেসব রোগ হতে পারে।

১. এক কামড় বার্গার খাওয়ার ১৫ মিনিট পরেই শরীরে শর্করার ধকল পড়বে । এই ধাক্কা নিঃসরণ করাবে ‘ইনসুলিন। কয়েক ঘণ্টা পর ক্ষুধা লাগবে।  ফলে ডায়বেটিসের ঝুঁকি বাড়ে। 

২.‘স্যাচুরেইটেড’ চর্বিতে ভরপুর  খাবার হ্ওয়ায় ধমনী ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং তাদের স্থিতিস্থাপকতা নষ্ট হয়। এতে রক্ত সঞ্চাচন ব্যাহত হয় যা পরবর্তী সময়ে হৃদরোগের কারণ হতে পারে।

৩. অতিরিক্ত সোডিয়ামও রক্ত সঞ্চালনকারী শিরা ও ধমনীর ক্ষতি করে। 

তাই  বার্গার বা যে কোনো ধরনের ‘জাঙ্কফুড’ খাওয়ার আগে এরবার ভেবে দেখুন।

ছবি: রয়টার্স।