নিঃসঙ্গতা ধূমপানের চেয়েও ক্ষতিকর!

  লাইফস্টাইল ডেস্ক ১৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৪:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

বৃদ্ধাশ্রমে একা বসে আছেন এক নারী।
বৃদ্ধাশ্রমে একা বসে আছেন এক নারী। ছবি সংগৃহীত

ধূমপান শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। ধূমপানের বিষয়টি আমরা জানলেও অনেকেই জানি না যে ধূমপানের চেয়েও ক্ষতিকর একা থাকা। আপনি জানেন কী? আয়ু কমানোর দিক থেকে ধূপমান আর স্থূলতার সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে নিঃসঙ্গতা।

বিশেষ করে বয়স্কদের ক্ষেত্রে মারাত্মক হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে এ সমস্যা। এমনি দাবি করছেন গবেষকরা।

পৃথিবীতে বৃদ্ধাশ্রমে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। তাই বৃদ্ধাশ্রমে বসবাসকারীদের মধ্যে যারা একাকী অনুভব করেন, তাদের সাধারণ বৈশিষ্ট্যগুলো শনাক্ত করার চেষ্টা করেন গবেষকরা।

‘এইজিং অ্যান্ড মেন্টাল হেলথ’ শীর্ষক জার্নালে এ গবেষণা প্রকাশিত হয়।

গবেষণায় দেখা যায়, নিঃসঙ্গতা নিয়ে একজন মানুষের বেঁচে থাকার অভিজ্ঞতা নির্ভর করে কয়েকটি ব্যক্তিগত ও পারিপার্শ্বিক বিষয়ের ওপর। বার্ধক্যজনিত ক্ষয় আর অপর্যাপ্ত সামাজিকতা নিঃসঙ্গ জীবনের ঝুঁকিপূর্ণ দিকগুলোর মধ্যে অন্যতম।

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া সান ডিয়েগো স্কুল অব মেডিসিন'য়ের ‘ডিপার্টমেন্ট অব সায়কিয়াট্রি’র ‘রিসার্চ ফেলো’ আলেহান্দ্রো পারেদস বলেন, বৃদ্ধাশ্রমে নতুন বন্ধুত্ব গড়ে উঠলেও তার দিকের হারানো বন্ধু, যাদের সঙ্গে জীবনের লম্বা সময় পার হয়েছে, তাদের অভাব তো পূরণ করা সম্ভব নয়। এ

নিঃসঙ্গতা অনুভূতির কারণে অনেকেই বেঁচে থাকার আগ্রহ হারান। এ ছাড়া পরিবার হারানোর ব্যথা তো রয়েছেই।

নিঃসঙ্গতা কাটানোর ক্ষেত্রে জীবনের অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞান, অপরের প্রতি সহানুভূতি ইত্যাদি উপকারী ভূমিকা রাখে বলে দেখেন গবেষকরা।

এ ছাড়া বার্ধক্যকে মেনে নেয়া এবং একাকী জীবনের মাঝেও সুখ খুঁজে নেয়ার মাধ্যমেও এর ক্ষতিকর প্রভাব এড়ানো সম্ভব হয়।

এই গবেষণার জন্য ৬৭ থেকে ৯২ বছর বয়সী মোট ৩০ জন মানুষের সাক্ষাৎকার নেন গবেষকরা। সান ডিয়েগোর বৃদ্ধাশ্রমে বাসকারী ১০০ প্রবীণকে নিয়ে তাদের শারীরিক, মানসিক ও জ্ঞানীয় বিষয় নিয়ে চলমান গবেষণার অংশ হিসেবে এ গবেষণা করা হয়।

গবেষণার প্রধান, ইউনিভার্সিটি অব ক্যারিফোর্নিয়া সান ডিয়েগো স্কুল অব মেডিসিন’য়ের ‘সাইকিয়াট্রি অ্যান্ড নিউরোসায়েন্স’ বিভাগের জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক দিলিপ ভি. জেস্টি বলেন, প্রবীণদের জানা উচিত একাকিত্ব আসলে কী? তা হলেও তাদের সার্বিক স্বাস্থ্যে উন্নতি করা সম্ভব হয়।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×