রান্নাঘর পরিষ্কার করুন মাত্র ২০ মিনিটে

  লাইফস্টাইল ডেস্ক ১৯ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৫৯:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

রান্নাঘর পরিষ্কার করুন মাত্র ২০ মিনিটে । ছবি সংগৃহীত

রান্নাঘরে সবচেয়ে বেশি জীবাণু থাকে। তাই রান্নাঘর পরিষ্কার রাখা জরুরি। তবে অনেকে রান্নাঘর পরিষ্কার করা ঝামেলা মনে করেন।
রান্নাঘরও বেশ ছোট হওয়ায় আলো-হাওয়া প্রবেশ করতে পারে না। তাই রান্নাঘরকে তেল-মসলার কালি থেকে রক্ষা করার হাতিয়ার চিমনি।

এখন বেশিরভাগ বাড়িতেই এটি ব্যবহার করা হয়। প্রয়োজন হলে সংশ্লিষ্ট চিমনি কোম্পানিতে কর্মরতরা এসে পরিষ্কারও করে দিয়ে যান। কিন্তু চিমনি নিজে হাতে পরিষ্কার করবেন কীভাবে।

সামান্য কিছু সহজ পদ্ধতি অবলম্বন করলেই মাত্র ২০ মিনিটে আবারও নতুন হয়ে উঠতে পারে আপনার রান্নাঘরের চিমনি।
আসুন জেনে নিই কীভাবে পরিষ্কার করবেন রান্নাঘর-

১. প্রথমেই চিমনিতে থাকা নেট খুলে ফেলুন। ব্রাশ দিয়ে তা ভালো করে ঝেড়ে ফেলুন। তাতেই দেখবেন নেটের ওপর লেগে থাকা আলগা ময়লা ঝড়ে পড়ে যাবে। বাকি থাকবে শুধু চিটচিটে তৈলাক্ত ময়লা।

২.এবার একটি বড় স্টিলের বড় পাত্র নিন। তার মধ্যে গরম পানি ঢালুন। ওই পানির ১/৪ অংশ বেকিং সোডা দিন। এবার তার মধ্যে চিমনির ওই নেটটি কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখুন।

৩. গরম পানি ডোবানো নেটের পাত্রটি গ্যাসের ওপর বসান। তা ভালো করে ফোঁটাতে থাকুন। খানিকক্ষণ পর নামিয়ে নিন। ভালো করে ব্রাশ দিয়ে ঘষে নিন। তাতেই দেখবেন আবারও নতুন রূপ ফিরে পেয়েছে আপনার চিমনির নেটটি।

এই চারটি সহজ নিয়ম মেনে পরিষ্কার করে ফেলুন চিমনি। তাতেই দেখবেন মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যেই আপনার রান্নাঘর আবারও ফিরে পাবে নতুন চেহারা।

তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত