করোনায় ৪৮ ঘণ্টা সুরক্ষা দেবে নাকের স্প্রে: গবেষণা 
jugantor
করোনায় ৪৮ ঘণ্টা সুরক্ষা দেবে নাকের স্প্রে: গবেষণা 

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২০, ১৩:০২:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে টিকা ছাড়াও অন্য উপায়ও খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা। তারা এখন জোর দিচ্ছেন মাউথওয়াশ ও নাকের স্প্রের ওপর।

এরই মধ্যে কার্যকর নাকের স্প্রে তৈরির কথা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

তারা জানাচ্ছেন, তাদের তৈরি ন্যাজাল স্প্রে করোনা সংক্রমণ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত সুরক্ষিত রাখবে। চলতি সপ্তাহেই তারা এই স্প্রের ব্যাপক উৎপাদনে যেতে চান।

গবেষণায় তাদের এই স্প্রে ব্যবহারে ভালো ফল পাওয়া গেছে। শিগগিরই যুক্তরাজ্যে সবার হাতের নাগালে চলে আসবে এই স্প্রে।

স্প্রে তৈরিতে যে রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে, তা মানুষের ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেয়েছে। মূলত দুটি রাসায়নিকের সংমিশ্রণে স্প্রে তৈরি করা হয়েছে।

এতে ব্যবহার করা হয়েছে ক্যারাজিনান ও জিলান। গবেষণাগারে দেখা গেছে, রাসায়নিক এই স্প্রে মানবদেহের কোষে প্রবেশের আগেই করোনাভাইরাসকে থামিয়ে দিতে সক্ষম।

গবেষক ড. রিচার্ড মোয়াকস বলেন, সহজলভ্য উপাদান দিয়ে এই স্প্রে তৈরি করা হয়েছে। যেগুলো খাদ্যসামগ্রী ও ওষুধে ব্যবহার করা হচ্ছে।

তথ্যসূত্র :ডেইলি মেইল।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

করোনায় ৪৮ ঘণ্টা সুরক্ষা দেবে নাকের স্প্রে: গবেষণা 

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২০, ০১:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে টিকা ছাড়াও অন্য উপায়ও খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা। তারা এখন জোর দিচ্ছেন মাউথওয়াশ ও নাকের স্প্রের ওপর। 

এরই মধ্যে কার্যকর নাকের স্প্রে তৈরির কথা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

তারা জানাচ্ছেন, তাদের তৈরি ন্যাজাল স্প্রে করোনা সংক্রমণ থেকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত সুরক্ষিত রাখবে। চলতি সপ্তাহেই তারা এই স্প্রের ব্যাপক উৎপাদনে যেতে চান। 

গবেষণায় তাদের এই স্প্রে ব্যবহারে ভালো ফল পাওয়া গেছে। শিগগিরই যুক্তরাজ্যে সবার হাতের নাগালে চলে আসবে এই স্প্রে।

স্প্রে তৈরিতে যে রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে, তা মানুষের ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেয়েছে। মূলত দুটি রাসায়নিকের সংমিশ্রণে স্প্রে তৈরি করা হয়েছে।

এতে ব্যবহার করা হয়েছে ক্যারাজিনান ও জিলান। গবেষণাগারে দেখা গেছে, রাসায়নিক এই স্প্রে মানবদেহের কোষে প্রবেশের আগেই করোনাভাইরাসকে থামিয়ে দিতে সক্ষম।

গবেষক ড. রিচার্ড মোয়াকস বলেন, সহজলভ্য উপাদান দিয়ে এই স্প্রে তৈরি করা হয়েছে। যেগুলো খাদ্যসামগ্রী ও ওষুধে ব্যবহার করা হচ্ছে। 

 

তথ্যসূত্র :ডেইলি মেইল।
 

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]