কেন সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়া করবেন

  লাইফস্টাইল ডেস্ক ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

কেন সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়া করবেন
কেন সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়া করবেন

মধুর সম্পর্কে কখনো ঝগড়া হয় না। এমনটি জানি আমরা।কিন্তু আপনি জানেন কি ঝগড়া হওয়া কিন্তু ভালো। ঝগড়ার পরে যখন সঙ্গীর সঙ্গে যখন মিল হয় তখন সম্পর্কটা আরও দীর্ঘস্থায়ী হয়। একজন অপর জনের প্রতি হৃদ্যতা বাড়তে ঝগড়ার বিকল্প নেই।

কিন্তু অনেক জুটিই আছেন যারা ঝগড়া এড়িয়ে চলতে চান। কিন্তু ঝগড়া এড়িয়ে চললেই কি সম্পর্ক টিকে যায়? যদি টিকেও যায় তারপরও কি তারা একে অপরের সঙ্গে সুখী?

হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এমনটি। আসুন জেনে নেই সম্পর্কে কেন ঝগড়া দরকার। আর কেনই বা সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়া করবেন।

সম্পর্ক স্থায়ী হয়

অনেক জুটি মনে করেন ঝগড়া সম্পর্কের মধ্যে ফাটল ধরায়। এমনটি ঝগড়ার কারণে সংসার ভেঙে যায়। কিন্তু আপনার এই ধারণা সব সময় ঠিক নয়।ঝগড়ার মাধ্যমে অধিকাংশ জুটি একে অপরের কাছে ক্ষমা চায় এবং আরও বেশি ঘনিষ্ঠ হয়। যদি ঝগড়া যুক্তিসঙ্গত হয় তবে এতে ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। সম্পর্কের গভীরতা বাড়ে

পারস্পরিক সম্মানের ভিত্তিতে যুক্তিসঙ্গত তর্ক করলে সম্পর্কের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। এতে আমরা ভালোমতো বুঝতে পারি কোন আচরণ সঙ্গীর পছন্দ হচ্ছে, কোনটি হচ্ছে না। এ দিকগুলো জানলে আপনি আপনার সঙ্গীর সব দিক সম্পর্কে স্পষ্ট হবেন এবং এতে পরস্পরের প্রতি গ্রহণযোগ্যতা বাড়বে।

ঝগড়ায় বিশ্বাস বাড়ে

পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে নিজেদের চিন্তাধারা একে অপরের কাছে খোলাখুলি বললে বিশ্বাস বাড়ে। অহেতুক তর্ক-বিতর্ক থেকে এটা পরস্পরকে দূরে রাখে। অহেতুক তর্ক-বিতর্ক বিচ্ছেদের দিকে নিয়ে যায়। অধিকাংশ সময় জুটিরা ঝগড়া এড়িয়ে চলেন। কিন্তু ঝগড়া ছাড়া সম্পর্ক আসলে পরস্পরের প্রতি গোপনীয়তায় ভরা থাকে। সুস্থ বিরোধে জুটিরা একসময় বুঝতে পারে সঙ্গীর কোন দিকটা বুঝতে তার সমস্যা হয়েছে।

আপনি ভালো অনুভব করেন

ঝগড়ার সময় নিজের মতামত জানালে নির্ভার মনে হয়। কিন্তু খেয়াল রাখবেন মতামত জানানোর ক্ষেত্রে রুক্ষ হওয়া যাবে না। সম্পর্ক অনেকটা রোলার কোস্টারের মতো। এতে উত্থান-পতন থাকবেই। একে অপরের গুরুত্ব বুঝতে সুস্থ বিতর্ক প্রয়োজন। প্রত্যেকেরই মতের ভিন্নতা রয়েছে। কিন্তু ঘুমানোর আগেই তা সমাধান করা প্রয়োজন।

চারিত্রিক উন্নতি

বিরোধের কারণে আপনার ধৈর্য, সঙ্গীর প্রতি যত্ন এবং ভালোবাসা বাড়ায়। আরেকজনের ভুলের সঙ্গে মানিয়ে নিতেও সাহায্য করে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন এ ঝগড়া নিয়মিত যেন না হয়। মাঝে মাঝে ঝগড়া করা ভালো।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- [email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে]

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter