বাংলাদেশ নিয়ে নিজের পরিকল্পনা জানালেন কিশোয়ার চৌধুরী
jugantor
যুগান্তরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে
বাংলাদেশ নিয়ে নিজের পরিকল্পনা জানালেন কিশোয়ার চৌধুরী

  লাইফস্টাইল ডেস্ক  

২২ জুলাই ২০২১, ২০:৩০:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ান মাস্টারশেফ ১৩তম আসরের দ্বিতীয় রানার আপ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কিশোয়ার চৌধুরী জানিয়েছেন, রান্না নিয়ে একটি বই লিখছেন তিনি। আর এই বই প্রকাশ উপলক্ষে বাংলাদেশের আসার পরিকল্পনা করছেন তিনি। দৈনিক যুগান্তরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান তিনি।

বাংলাদেশে কোনো রেস্টুরেন্ট করার পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে কিশোয়ার বলেন, সে রকম কোনো পরিকল্পনা তার নেই।

২০২০ সালে করোনা মহামারির আগে বাংলাদেশে এসেছিলেন জানিয়ে কিশোয়ার বলেন, বাংলাদেশের প্রতি শিকড়ের টান অনুভব করেন তিনি। করোনার আগে বছরে একবার হলেও বাংলাদেশে আসতেন বলে জানান তিনি।

ঈদের দিন কী রান্না করেছেন জানতে চাইলে কিশোয়ার বলেছেন, এই ঈদে বেশি সময় পাননি। তারপরও পরিবারের সবার জন্য তানাকা (মাংস দিয়ে তৈরি জাপানি কুইজিন) রান্না করেছিলেন তিনি।

মাস্টারশেফ প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত সময় পার করে পরিবারের সঙ্গেই ঈদ উযপাদন করেছেন কিশোয়ার।

অস্ট্রেলিয়ান মাস্টারশেফ ১৩তম আসরের দ্বিতীয় রানার আপ হওয়ায় রাতারাতি আন্তর্জাতিক তারকা হয়ে ওঠেন কিশোয়ার। সাহস, পরিশ্রম, রুচি আর মেধা দিয়ে বাংলাদেশি ঐতিহ্যবাহী খাবার পান্তাভাত, শুকনা মরিচ পোড়া, ভাজা মাছ, আলু ভর্তা ও নানা রকম বাঙালি পরিবেশন করে এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী অন্য এক বাংলাদেশকে পরিচিত করিয়েছেন ৩৮ বছর বয়সী এই নারী।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-jugantorlifestyle@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে

বাংলাদেশ নিয়ে নিজের পরিকল্পনা জানালেন কিশোয়ার চৌধুরী

 লাইফস্টাইল ডেস্ক 
২২ জুলাই ২০২১, ০৮:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ান মাস্টারশেফ ১৩তম আসরের দ্বিতীয় রানার আপ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কিশোয়ার চৌধুরী জানিয়েছেন, রান্না নিয়ে একটি বই লিখছেন তিনি। আর এই বই প্রকাশ উপলক্ষে বাংলাদেশের আসার পরিকল্পনা করছেন তিনি। দৈনিক যুগান্তরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান তিনি। 

বাংলাদেশে কোনো রেস্টুরেন্ট করার পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে কিশোয়ার বলেন, সে রকম কোনো পরিকল্পনা তার নেই। 

২০২০ সালে করোনা মহামারির আগে বাংলাদেশে এসেছিলেন জানিয়ে কিশোয়ার বলেন, বাংলাদেশের প্রতি শিকড়ের টান অনুভব করেন তিনি। করোনার আগে বছরে একবার হলেও বাংলাদেশে আসতেন বলে জানান তিনি।

ঈদের দিন কী রান্না করেছেন জানতে চাইলে কিশোয়ার বলেছেন, এই ঈদে বেশি সময় পাননি। তারপরও পরিবারের সবার জন্য তানাকা (মাংস দিয়ে তৈরি জাপানি কুইজিন) রান্না করেছিলেন তিনি। 

মাস্টারশেফ প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত সময় পার করে পরিবারের সঙ্গেই ঈদ উযপাদন করেছেন কিশোয়ার।

অস্ট্রেলিয়ান মাস্টারশেফ ১৩তম আসরের দ্বিতীয় রানার আপ হওয়ায় রাতারাতি আন্তর্জাতিক তারকা হয়ে ওঠেন কিশোয়ার। সাহস, পরিশ্রম, রুচি আর মেধা দিয়ে বাংলাদেশি ঐতিহ্যবাহী খাবার পান্তাভাত, শুকনা মরিচ পোড়া, ভাজা মাছ, আলু ভর্তা ও নানা রকম বাঙালি পরিবেশন করে এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী অন্য এক বাংলাদেশকে পরিচিত করিয়েছেন ৩৮ বছর বয়সী এই নারী।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-jugantorlifestyle@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন