ছেলেদের ত্বক ও চুলের যত্ন
jugantor
ছেলেদের ত্বক ও চুলের যত্ন

  লাইফস্টাইল ডেস্ক  

০৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৪৩:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ছেলেদের ত্বক ও চুলের যত্ন

বাইরের ধুলাবালি, সারা দিনের কাজের চাপ আর খাবারের কারণেও ত্বকের নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ছেলেদের। এ ছাড়া ঋতুভেদে শীতের এ সময়েও পুরুষের ত্বকে ব্রণসহ র‌্যাশ, কালচে দাগ কিংবা পা ফাটার মতো রুক্ষতা আর মলিনতা ধরা দেয় ত্বকে। খুব সহজেই ঘরে বসে কীভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব তাই জানিয়েছেন রেড বিউটি স্যালুনের স্বত্বাধিকারী আফরোজা পারভীন। গ্রন্থনা করেছেন ষ ফারিন সুমাইয়া

ছেলেদের ত্বক তুলনামূলক বেশ রুক্ষ হয়ে থাকে। তাই পুরুষের ত্বক খুব তাড়াতাড়ি তার মলিনতা হারিয়ে ফেলে। আর এ ক্ষেত্রে ত্বকের পাশাপাশি তা ফুটে ওঠে হাতে এবং পায়ে। ত্বকের রুক্ষতার ক্ষেত্রে সবেচেয়ে বেশি চোখে পড়ে পা ফাটার মতো সমস্যাটি। তাই বাইরে থেকে বাসায় ফেরার পর হালকা গরম পানিতে পা পরিষ্কার করে নিলে কিংবা সাবান দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করে পরিষ্কার করে নিলে বেশ ভালো উপকার পাওয়া সম্ভব। এ ছাড়া রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মোটা করে পেট্রোলিয়াম জেলি পা ফাটার জায়গায় প্রলেপ আকারে লাগিয়ে মোজা পরে ঘুমালে পা ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এতে করে খুব দ্রুত পা ফাটা বন্ধ হবে এবং পা তার আগের রূপ ফিরে পেতে শুরু করবে। অন্যদিকে যাদের পা ফাটার সমস্যা মাত্র শুরু হয়েছে শীতের আগমনের সঙ্গে সঙ্গে তারা পা ভালো করে পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে শীতজুড়েই পাবে সুন্দর পায়ের ত্বক।

এ ছাড়া শীতের এ সময়েও অনেক ক্ষেত্রেই সানবার্নের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ছেলেদের। এ ক্ষেত্রে হাতের এক অংশ পর্যন্ত কালচে আভা কিংবা পায়ের গোড়ালিতে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত বসে থাকার দরুন কালো দাগের সৃষ্টি হয়। অন্যদিকে যারা চশমা পরে থাকেন তাদের নাকের এক অংশ পর্যন্ত কালচেভাবের সৃষ্টি হয়। এ ক্ষেত্রে সমপরিমাণ টকদই আর হলুদের গুঁড়া মিশিয়ে প্যাক আকারে ব্যবহার করলে এ দাগ থেকে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই মিলবে মুক্তি। তবে এ ক্ষেত্রে প্যাক ব্যবহারের পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে পাশাপাশি ১৫ থেকে ২০ মিনিট মিশ্রণটি রেখে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় থাকা পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

শীতের এ সময়ে ছেলেদের আরেকটি বড় সমস্যা হচ্ছে খুশকি। খুশকির কারণে চুলের গোড়া যেমন নরম হয়ে যায় তেমনি চুল পড়ার সমস্যাও দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে সপ্তাহে অন্তত দুই দিন চুলের গোড়ায় ভালো করে ওয়েল ম্যাসাজ করে এর পর লেবু আর টকদইয়ের মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রাখার পর ভালো করে শ্যাম্পু করে নিতে হবে। এতে করে চুল যেমন আগের রূপ ফিরে পাবে তেমনি চুল পড়া বন্ধ হবে এবং চুলের গোড়াও হবে মজবুত আর আপনি পাবেন ঝলমলে চুল।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-jugantorlifestyle@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

ছেলেদের ত্বক ও চুলের যত্ন

 লাইফস্টাইল ডেস্ক 
০৪ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছেলেদের ত্বক ও চুলের যত্ন
প্রতীকী ছবি

বাইরের ধুলাবালি, সারা দিনের কাজের চাপ আর খাবারের কারণেও ত্বকের নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ছেলেদের। এ ছাড়া ঋতুভেদে শীতের এ সময়েও পুরুষের ত্বকে ব্রণসহ র‌্যাশ, কালচে দাগ কিংবা পা ফাটার মতো রুক্ষতা আর মলিনতা ধরা দেয় ত্বকে। খুব সহজেই ঘরে বসে কীভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া সম্ভব তাই জানিয়েছেন রেড বিউটি স্যালুনের স্বত্বাধিকারী আফরোজা পারভীন। গ্রন্থনা করেছেন ষ ফারিন সুমাইয়া

ছেলেদের ত্বক তুলনামূলক বেশ রুক্ষ হয়ে থাকে। তাই পুরুষের ত্বক খুব তাড়াতাড়ি তার মলিনতা হারিয়ে ফেলে। আর এ ক্ষেত্রে ত্বকের পাশাপাশি তা ফুটে ওঠে হাতে এবং পায়ে। ত্বকের রুক্ষতার ক্ষেত্রে সবেচেয়ে বেশি চোখে পড়ে পা ফাটার মতো সমস্যাটি। তাই বাইরে থেকে বাসায় ফেরার পর হালকা গরম পানিতে পা পরিষ্কার করে নিলে কিংবা সাবান দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করে পরিষ্কার করে নিলে বেশ ভালো উপকার পাওয়া সম্ভব। এ ছাড়া রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মোটা করে পেট্রোলিয়াম জেলি পা ফাটার জায়গায় প্রলেপ আকারে লাগিয়ে মোজা পরে ঘুমালে পা ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এতে করে খুব দ্রুত পা ফাটা বন্ধ হবে এবং পা তার আগের রূপ ফিরে পেতে শুরু করবে। অন্যদিকে যাদের পা ফাটার সমস্যা মাত্র শুরু হয়েছে শীতের আগমনের সঙ্গে সঙ্গে তারা পা ভালো করে পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে শীতজুড়েই পাবে সুন্দর পায়ের ত্বক।

এ ছাড়া শীতের এ সময়েও অনেক ক্ষেত্রেই সানবার্নের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ছেলেদের। এ ক্ষেত্রে হাতের এক অংশ পর্যন্ত কালচে আভা কিংবা পায়ের গোড়ালিতে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত বসে থাকার দরুন কালো দাগের সৃষ্টি হয়। অন্যদিকে যারা চশমা পরে থাকেন তাদের নাকের এক অংশ পর্যন্ত কালচেভাবের সৃষ্টি হয়। এ ক্ষেত্রে সমপরিমাণ টকদই আর হলুদের গুঁড়া মিশিয়ে প্যাক আকারে ব্যবহার করলে এ দাগ থেকে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই মিলবে মুক্তি। তবে এ ক্ষেত্রে প্যাক ব্যবহারের পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে পাশাপাশি ১৫ থেকে ২০ মিনিট মিশ্রণটি রেখে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় থাকা পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

শীতের এ সময়ে ছেলেদের আরেকটি বড় সমস্যা হচ্ছে খুশকি। খুশকির কারণে চুলের গোড়া যেমন নরম হয়ে যায় তেমনি চুল পড়ার সমস্যাও দেখা দেয়। এ ক্ষেত্রে সপ্তাহে অন্তত দুই দিন চুলের গোড়ায় ভালো করে ওয়েল ম্যাসাজ করে এর পর লেবু আর টকদইয়ের মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রাখার পর ভালো করে শ্যাম্পু করে নিতে হবে। এতে করে চুল যেমন আগের রূপ ফিরে পাবে তেমনি চুল পড়া বন্ধ হবে এবং চুলের গোড়াও হবে মজবুত আর আপনি পাবেন ঝলমলে চুল।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-jugantorlifestyle@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন