বইমেলায় স্বপ্নিল চৌধুরীর ‘জার্সি নম্বর ৯৬’

প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:১৯ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক


ওয়ানডে সিরিজ জয় কী জিনিস বাংলাদেশ তখনও তা চেনেনি। তখন বাংলাদেশ ক্রিকেটে ঘটে তার আবির্ভাব।

২-০ তে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পিছিয়ে থাকা সিরিজ শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ জিতে ৩-২ ব্যাবধানে, যেখান সবচেয়ে বড় অবদান ছিলো মানজারুল ইসলাম রানার হয়েছিলেন সিরিজ সেরাও।

প্রথম ২ ম্যাচ হেরে যখন কোণঠাসা দল,তখনই দলে তার অন্তভুক্তি, প্রথমে ম্যাচে ৪ উইকেট নিয়ে এড়িয়ে যান হোয়াইটওয়াশ।

পরের ম্যাচে আবারেও ৪ উইকেট নিয়ে সিরিজে আনেন সমতা। পরের ম্যাচে ১ উইকেট নিলেও কিপটে বোলিং করে বাংলাদেশকে প্রথমবার ওয়ানডে সিরিজ জেতান।

বইটিতে অকালপ্রয়াত মানজারুল ইসলাম রানার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো তুলে ধরা হয়েছে, রানার সতীর্থ প্রিয় বন্ধু মাশরাফি বিন মর্তুজা, রানার অধিনায়ক হাবিবুল বাশার সুমন, রানার বিপক্ষে খেলা জিম্বাবুয়ের তাতেন্দা তাইবুর রানাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ রয়েছে।

বইটির লেখকের জীবনের একটি বিশাল অংশ জুড়েই আছে ক্রিকেট। ক্রিকেটেই পড়ে থাকা তার নেশা। বলা যায় বুঝতে শেখার পর থেকেই ক্রিকেটের সঙ্গে সখ্যতা শুরু। সেই ক্রিকেটের সঙ্গেই দানা বেঁধেছে প্রথম প্রেম।

ছোটবেলার একটি স্বপ্ন ছিলো ক্রিকেটার হবেন। ক্রিকেটটা খুব যে খারাপ খেলতেন তাও কিন্তু না। কিন্তু ভাগ্য তার সহায় হয়নি! তাই ক্রিকেটার হয়ে ওঠা হয়নি।

ক্রিকেটার হয়ে উঠা হয়নি তাতে কি? ভালোবাসা ঠিক আগের মতোই আছে। একটুও ছেদ পড়েনি সেই ভালোবাসায়।

তাইতো লিখেছেন সাবেক ক্রিকেটার রানাকে নিয়ে একটি বই। বইটির নাম মানজারুল ইসলাম রানা: জার্সি নম্বর ৯৬।

এটিই স্বপ্নিল চৌধুরীর প্রথম বই। প্রকাশ করেছে দেশ পাবলিকেশন্স। পাওয়া যাবে ৩৮৮-৩৮৯ নম্বার স্টলে।  

স্বপ্লিলের জন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার আমতলী গ্রামের সাহেব বাড়িতে। বাবা আব্দুল মান্নান চৌধুরী, মা শামীমা মান্নান চৌধুরী।

তারা দুই ভাই আর বাবা-মাকে নিয়ে ছোট্ট সংসার। ছোটো ভাই আইমুন চৌধুরী। স্বপ্নীল সবার বড়।

পড়েন আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি- বাংলাদেশ (এআইইউবি) এমবিএ পড়ছেন। মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিবিএ শেষ করেছেন এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই।

ক্রিকেট, নাটক এবং বিশ্ববিদ্যালয় এর বিভিন্ন ক্লাবের কর্মকাণ্ড দিয়ে আলো ছড়িয়েছেন ক্যাম্পাসে। বর্তমানে তিনি এমবিএ ও করছেন উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে।

এমবিএ করার  পাশাপাশি তিনি ইমপ্রেস গ্রুপ এর মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগে কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন।

জাপানের ‘ইউশি কালচারাল এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম’ এর আওতায় সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় এর প্রতিনিধিদল এর সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন ১৫ দিনের জাপান সফর।

ডাবল মাস্টার্স এবং পিএইচডি দেশের বাইরে করার ইচ্ছে তার।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী স্বনামধন্য অভিনেতা ও পরিচালক গাজী রাকায়েত হোসেন এর নাট্যদল ‘চারুনীড়ম’ থিয়েটারের নাট্যকর্মী তিনি।

মঞ্চ নাটকের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন বেশ কয়েকটি টিভি নাটকে।