বইমেলায় নাসরিন সাথীর 'স্বপ্ন ঘুমায় চাঁদে'র দ্বিতীয় মুদ্রণ

  হোসাইন এমরান ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

নাসরিন সাথী

জীবনের বাস্তবতাকে বুকে লালন করে আগামীর সোনালি স্বপ্নের হাতছানি নিয়ে প্রতিটি ব্যক্তিসত্তার নিজেকে নতুন করে আবিষ্কারের ক্ষেত্র উন্মোচনের অঙ্গীকার নিয়ে অমর একুশে বইমেলায় এসেছে 'নাসরিন সাথী'র কাব্যগ্রন্থ 'স্বপ্ন ঘুমায় চাঁদে' এবং গল্পগ্রন্থ 'শেষ হইয়াও হইল না শেষ'। বইগুলোতে প্রাধান্য পেয়েছে স্বদেশপ্রেম,স্মৃতিকথা,বাস্তবমুখী জীবনধারা,সামাজিক স্তর ও বৈষম্য, সৃষ্টির প্রতি ভালোবাসার মতো প্রসঙ্গ। এছাড়াও রয়েছে শিশু অধিকার, নারী জাগরণ, কুসংস্কার, প্রেম ও দ্রোহসহ সমাজের সব স্তরের সব বয়সী মানুষের জীবনচিত্র।

ইতিমধ্যে ব্যতিক্রমী কাব্যগ্রন্থ 'স্বপ্ন ঘুমায় চাঁদে'র দ্বিতীয় মুদ্রণের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। সাড়া জাগানো গল্পগ্রন্থ "শেষ হইয়াও হইল না শেষ"ও দ্বিতীয় মুদ্রণের প্রতীক্ষায়।

বইমেলার অনুভূতি এবং গ্রন্থগুলোর সাফল্য নিয়ে লেখিকার সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, এই অপসংস্কৃতির যুগে এসেও নিজেকে আলোকিত করার তীব্র আকাঙ্ক্ষা নিয়ে সব বয়সী মানুষের বইমেলায় ব্যাপক অংশগ্রহণ সত্যিই প্রশংসনীয়। বিস্তৃত পরিসরের এই বইমেলাকে ঘিরে তরুণ প্রজন্মের উচ্ছ্বাস চোখে পড়ার মতো।

নতুনদের লেখালেখি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের অনেকে এখন লেখালেখির সঙ্গে সম্পৃক্ত হচ্ছেন এবং মানসম্পন্ন লেখা জাতিকে উপহার দিচ্ছেন। পুরনোদের পাশাপাশি নতুনদের লেখা এখন ব্যাপকভাবে সমাদৃত হচ্ছে। এটি বাংলাদেশের সাহিত্যের ক্ষেত্রে একটি অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক দিক।

নিজের বইয়ের সাফল্যের ব্যাপারে তিনি বলেন, মানুষের হয়ে মানুষের কথা বলতে পারার এই আনন্দের সঙ্গে অন্যকিছুর তুলনা হয় না। এখানেই একজন প্রকৃত লেখকের সফলতা।

কবিতার বইয়ের গ্রহণযোগ্যতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যে কোনো লেখায় যদি মৌলিকতা, জীবনবোধোর সম্পৃক্ততা থাকে তো সেটা পাঠকের হৃদয় ছুঁয়ে যাবে, হোক সেটা গল্প কিংবা কবিতা কিংবা অন্যকিছু। পাঠক আসলে মানসম্মত বই চায়। তিনি বলেন, " স্বপ্ন ঘুমায় চাঁদে" কাব্যগ্রন্থটিতে প্রচলিত ছন্দের বাইরেও কিছু নতুন আকর্ষণীয় ছন্দের কবিতা আছে। এছাড়া বিভিন্ন ছন্দের উপর বিভিন্ন ধারার নতুন চাল রয়েছে। খুব সম্ভবত, এতগুলো ছন্দ আর এতগুলো চাল একই বইয়ে বাংলা সাহিত্যে এটাই প্রথম। "স্বপ্ন ঘুমায় চাঁদে" এবং "শেষ হইয়াও হইল না শেষ" বই দুটো পাওয়া যাবে 'সাহিত্যকথা প্রকাশনী'র (৬৩৩,৬৩৪ নং) এবং 'দাঁড়িকমা প্রকাশনী'(৬৬৬নং) স্টলে। এছাড়াও সংগ্রহ করা যাবে রকমারি ডটকম থেকে।

ঘটনাপ্রবাহ : বইমেলা-২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter