মেলায় প্রযুক্তিপ্রেমী ও তরুণদের প্রিয় বই 'সাইবার ক্রাইম'

প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:৪৩ | অনলাইন সংস্করণ

  পলাশ মাহমুদ

হরহামেশা আমাদের ফেসবুক ও ইমেইল অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে থাকে। চুরি হয় ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের গোপন নম্বরও। অনেক সময় স্পাম মেইলের মাধ্যমে কোটি কোটি ডলার লেনদেনের নামে প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার ঘটনাও ঘটে আমাদের আশপাশে। অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির এসএমএস, হুমকি, নম্বর ক্লোনসহ নানা ধরনের সাইবার ক্রাইম কীভাবে সংঘটিত হয়। কারা করছে এসব অপরাধ, কারাই বা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এসবের সুস্পষ্ট ধারণা দিয়ে লেখা হয়েছে 'সাইবার ক্রাইম: প্রযুক্তির ঝুঁকি ও নিরাপত্তা' বইটি।

প্রকাশনা সংস্থা 'ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ' থেকে বইটি প্রকাশিত হয়েছে গত ২১ ফেব্রুয়ারি। এরই মধ্যে তরুণ ও প্রযুক্তিপ্রেমীদের মধ্যে সাড়া ফেলেছে। বিভিন্ন ধরনের সাইবার ক্রাইম থেকে বাঁচতে ও নিরাপদে মোবাইল, কম্পিউটার, ফেসবুক ও ইন্টারনেটের ব্যবহার জানানোর মতো তথ্যবহুল বইটি। বইটি সাজানো হয়েছে অসংখ্য সত্য ঘটনা, হ্যাকিং, প্রাকিং ও নানা কলা-কৌশলের বর্ণনা দিয়ে।

সাইবার ক্রাইম কী? কীভাবে এটি সংঘটিত হয়? ডিজিটাল ব্যবস্থার কী কী ফাঁকফোকর রয়েছে? তথ্যপ্রযুক্তির বিপ্লবের সঙ্গে এই অপরাধের ক্রমবৃদ্ধি কতটুকু? বিশ্বে কী কী ধরনের সাইবার ক্রাইম হয়? বাংলাদেশেই বা কেমন অপরাধ হচ্ছে বা আগামীতে হতে পারে? কম্পিউটার, মোবাইল ও অন্যান্য মাধ্যম ব্যবহার করে কী ধরনের অপরাধ হয়? ব্যাংকিং সেক্টরে কেমন অপরাধ হয়? সাইবার অপরাধকে কেন্দ্র করে যে বৈশ্বিক চক্র গড়ে উঠেছে তার অবস্থাই বা কী? সাইবার সম্পর্কিত ক্রিমিনাল ইন্ডাস্ট্রিজের অর্থনৈতিক অবস্থান কেমন? বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এসব অপরাধ মোকাবিলায় কতটুকু সক্ষম? সাইবার অপরাধের সমাধান কোথায়? এসব প্রশ্নের সুস্পষ্ট উত্তরের আলোকেই লেখা হয়েছে এ গ্রন্থ। বর্ণনা করা হয়েছে মোবাইলের মাধ্যমে প্রতারণা, কম্পিউটারভিত্তিক সাইবার ক্রাইম ও অন্যান্য টেকনোলজি ব্যবহার করে বিশ্বব্যাপী অপরাধীরা যেসব অপরাধ করে থাকে, সে সম্পর্কে।

বইটি পড়লে জানা যাবে প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারের ঝুঁকিপূর্ণ দিক ও সাইবার ক্রাইমের শিকার হলে কোথায় গিয়ে অভিযোগ করতে হবে, সে সম্পর্কে। বইটি পাওয়া যাচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮'র ২ নম্বর প্যাভিলিয়ন (মেলার সোহরাওয়ার্দী অংশে প্রবেশ করতেই দ্বিতীয় দোকানটি) 'ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ' এ। দাম রাখা হয়েছে ২২৫ টাকা। মেলা উপলক্ষে বইটিতে ২৫ শতাংশ ছাড় দেয়া হয়েছে।