ড. হাসান বাবুর নতুন বই

‘একটি স্বপ্ন একটি দেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ’

প্রকাশ : ০২ মার্চ ২০১৮, ১৪:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান এবং  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিকস ও ম্যাকাট্রনিক্স বিভাগের ফাউন্ডার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহাম্মদ হাসান বাবু এবারের অমর একুশের বইমেলায় দেশের ডিজিটাল বিপ্লবের বিষয় নিয়ে নতুন বই নিয়ে এসেছেন। যার শিরোনাম ‘একটি স্বপ্ন একটি দেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ’।

আমাদের দেশে তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে উদ্যোগের সীমা নেই, হয়তো বা সমন্বয়ের কিঞ্চিত অভাব রয়েছে। অধ্যাপক হাসান বাবু বিচিত্র উদ্যোগ সম্পর্কে তার লেখা বইটিতে ইতিবাচক কথা বলেছেন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নকে জোরদার করেছেন। কখনও উন্নত দেশের প্রযুক্তির ব্যবহারের কথা জানিয়ে, কখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে যে উদ্যোগগুলো নেয়া হয়েছে তা জানিয়ে, কখনও  কৃষিতে, গ্রামে, মোবাইল ব্যাংকিংয়ে, ই-গভর্নমেন্টের কর্মসূচি, স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কিংবা পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্র, মেট্রোরেল, বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের উদ্যোগগুলোর কথা বলে পাঠকের মধ্যে আস্থা ও স্বপ্ন জাগিয়ে তুলেছেন।

এর পর লেখক ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ : কিছু দিকনির্দেশনা’ শিরোনামের প্রবন্ধে তার নিজের অভিজ্ঞতা এবং জ্ঞানের আলোকে এই অভিধারণার সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপান্তর করতে প্রস্তাবও রেখেছেন।

আমাদের দেশে বিশেষ করে তথ্যপ্রযুক্তির খাতে উদ্যোগের কোনো কমতি নেই এই আঙ্গিকে অধ্যাপক হাফিজের প্রস্তাবনাগুলো যেমন বিবেচনার দাবিদার একই সঙ্গে আমাদের উদ্যোগগুলো থেকে পার্শ্ববর্তী দেশের মতো আমরা কেন সাফল্য লাভ করতে পারছি না, তাও বিশ্লেষণ করা প্রয়োজন। সীমিত সম্পদের দেশে উদ্যোগ-সর্বস্ব কর্মকাণ্ডে সম্পদ অপচয়ের মতো প্রাচুর্য আমাদের নেই।  

আমাদের তরুণ সম্প্রদায় বিশেষ করে তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানে, দক্ষতায় বিশ্বসভা থেকে সমীহ আদায় করেছে। বাংলাদেশের বিশ্ববিদালয়ের শিক্ষার্থীরা বিশ্ব প্রোগ্রামিংয়ের আসর থেকে সাফল্য ছিনিয়ে আনছে। বিগত ২০ বছর আমাদের শিক্ষার্থীরা এসিএম আইসিপিসির বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করেছে। আমাদের তরুণ তরুণীদের তথ্যপ্রযুক্তির দক্ষতাও বিশ্বমানের। ডিজিটাল বাংলাদেশ কেবল স্বপ্ন থাকবে না, বাস্তবে পরিণত করার প্রয়োজনীয় উপাদান আমাদের দেশে রয়েছে।

বইটিতে তিনি লিখেছেন- বিদেশ বিভূঁই থেকে তথ্যপ্রযুক্তির যন্ত্রাংশ, সফটওয়্যার এবং প্রকৌশলী এনে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করা যাবে না। আমাদের নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে এবং তা ব্যবহার করতে হবে, তাতে আস্থাবান হতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ করার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য সর্বস্তরের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে এবং তাদের নেতৃত্বদানের জন্য তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ শিক্ষাবিদ, গবেষক, উদ্যেক্তাদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে, দায়িত্ব দিতে হবে।

বইটিতে তিনি আরও লিখেছেন- সীমিত সম্পদের দেশকে উন্নয়নের পথে যেতে হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ অভিধারণার বিকল্প নেই। আশা করি, এর বাস্তবায়নে আমাদের সরকার সংশ্লিষ্ট জনগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ করে অভীষ্ঠ লক্ষ্যে পৌঁছাবে, আমাদের দেশ উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বসভায় গর্বের সঙ্গে আবির্ভূত হবে। আমি আশা করি, এই বইটি পড়ে বাংলাদেশের মানুষ ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় প্রত্যয়ী হবে, অধিকতর আস্থাবান হবে। 

নবরাগ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ২৫৬ পৃষ্ঠার বইটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০০ টাকা। বইটি ঘরে বসে পেতে চাইলে রকমারি ডটকমের মাধ্যমে অর্ডার করতে পারেন।