চৌধুরী রওশন ইসলামের ‌‘দৈনন্দিন গল্প’ পাওয়া যাচ্ছে বইমেলায়
jugantor
চৌধুরী রওশন ইসলামের ‌‘দৈনন্দিন গল্প’ পাওয়া যাচ্ছে বইমেলায়

   

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:১৯:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

চৌধুরী রওশন ইসলাম

চৌধুরী রওশন ইসলামের কবিতা এবং গল্প বেশ কিছু দিন থেকেই জাতীয় দৈনিকের সাহিত্য পাতায় চোখে পড়ছে। তার রচনার, সে গল্প কিম্বা কবিতা যাই হোক, প্রধান বৈশিষ্ট্য সাবলীল ভাষা। সাধারণ ঘটনাকে সাধারণের ভাষায় অসাধারণ মোহ নিয়ে ফুটিয়ে তোলার নৈপূন্য আছে তার রচনায়। তার কবিতাগুলো এক ধরণের কাব্যিক গল্প।

আধুনিক কবিতার দুর্বোধ্যতার দোহাই দিয়ে পাঠকের মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার ভয় সেখানে নেই। তার গল্পগুলো ছোটগল্পের বৈশিষ্ট্য নিয়ে পাঠককে হঠাৎ একটা ভিন্ন জগতে ঢুকিয়ে দেয়। পাঠক তার চিরকালের চেনা জগতকেই আবার নতুন করে দেখে, নতুন ভঙ্গিতে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০ উপলক্ষে এই লেখকের প্রথম গল্পগ্রন্থ ‌‘দৈনন্দিন গল্প’ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশ করেছে ঐতিহ্য প্রকাশনী। দৈনন্দিন গল্প-এর গল্পগুলো সমাজের দৈনন্দিন ঘটনাবলীরই চিত্রায়ন। লেখকের দৃষ্টিভঙ্গি এবং তার উপস্থাপন পাঠককে মুগ্ধ করবে নিশ্চিতভাবেই।

রাবণালাপ গল্পে পৌরাণিক রাবণের সঙ্গে লেখক গল্প করতে করতে পাঠককে একটা খোঁচা মেরে জানিয়ে দিচ্ছেন, বইমেলার মতো একটি জাতীয় পবিত্র তীর্থে কীভাবে পাপ ঘুরে বেড়ায়, যে পাপ বস্তুত ছড়িয়ে আছে দেশের সবখানে। পাপ গল্প পাঠককে মনে করিয়ে দেবে নিয়ন্ত্রণহীন সম্পদ কতটা বিভৎস্য হয়ে ওঠে আর তার পরিণতিইবা কী। দিনুর সংসার গল্পে ফুটে উঠেছে এ সমাজের খুব স্পষ্ট কিছু ছবি।

একই সঙ্গে ভিন্ন পরিস্থিতিতে শত্রুর সঙ্গেও মানুষের মায়ার বন্ধন তৈরির এক অসাধারণ চিত্র পাওয়া যায় এ গল্পে। শানু এবং তুষারের ব্যক্তিত্ব তাদের প্রেমকেও ছাপিয়ে উঠেছে বর্ষার ফুল গল্পে। রক্ত-কথা-য় দেখতে পায় একজন বৃদ্ধ শিক্ষক কাজী আব্দুল হাফিজের হৃদয়ের রক্ত-ক্ষরণ। নিজ ছাত্রের প্রতারণায় ব্যথিত, তবু তাকে অভিশাপে আশির্বাদ-বঞ্চিত করে নীতি-ভ্রষ্ট হতে চাননি।

এরকম দশটি গল্প নিয়ে লেখক তার প্রথম গল্পগ্রন্থ সাজিয়েছেন। দালালি তার রক্তে নেই, খুন, চম্বল গাছ, খ্যাতি, রিকশা-যাত্রা-র মতো অসাধারণ গল্পগুলো পাঠকের জন্য সুখপাঠ্য হবে, একথা বলাই যায়।

প্রথম গল্পগ্রন্থ সম্পর্কে লেখক বলেন— সাহিত্যে তো বেড়াতে আসিনি, থাকতে এসেছি। শুরুতে চটক দেখিয়ে এখানে কোনো লাভ নেই। তাই এ গ্রন্থ নিয়ে অতিরঞ্জিত কিছু না বলাই ভালো। এ গ্রন্থের গল্পগুলো আমাদের আশেপাশেই ঘুরঘুর করে। অনেকেই দেখে কিন্তু পুরোটা হয়তো সবাই বুঝে ওঠে না। আমি চেষ্টা করেছি, সমাজের আসল চেহারাটা সমাজের সামনে তুলে ধরতে; আয়নার মতো। দৈনন্দিন গল্পে ছবিগুলো কতটা স্পষ্ট হয়েছে, তা পাঠকই ভালো বলতে পারবেন। চরিত্র নির্মাণে আমি আত্মতুষ্ট নই। তবুও ধারণা করছি, দৈনন্দিন গল্প গ্রন্থের বিভিন্ন গল্পের মূল চরিত্রগুলো পাঠককে আনন্দ দেবে।

দৈনন্দিন গল্প লেখকের প্রকাশিত দ্বিতীয় গ্রন্থ। তার প্রথম গ্রন্থ প্রতিবিম্ব (কাব্যগ্রন্থ) পাঠক-নন্দিত। প্রকাশ করেছে ঐতিহ্য প্রকাশনী। লেখকের দুটি গ্রন্থই বইমেলায় পাওয়া যাবে ঐতিহ্যের স্টলে (প্যাভিলিয়ন নং- ১৪, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান)।

চৌধুরী রওশন ইসলামের ‌‘দৈনন্দিন গল্প’ পাওয়া যাচ্ছে বইমেলায়

  
১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৪:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চৌধুরী রওশন ইসলাম
চৌধুরী রওশন ইসলাম

 চৌধুরী রওশন ইসলামের কবিতা এবং গল্প বেশ কিছু দিন থেকেই জাতীয় দৈনিকের সাহিত্য পাতায় চোখে পড়ছে। তার রচনার, সে গল্প কিম্বা কবিতা যাই হোক, প্রধান বৈশিষ্ট্য সাবলীল ভাষা। সাধারণ ঘটনাকে সাধারণের ভাষায় অসাধারণ মোহ নিয়ে ফুটিয়ে তোলার নৈপূন্য আছে তার রচনায়। তার কবিতাগুলো এক ধরণের কাব্যিক গল্প।

আধুনিক কবিতার দুর্বোধ্যতার দোহাই দিয়ে পাঠকের মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার ভয় সেখানে নেই। তার গল্পগুলো ছোটগল্পের বৈশিষ্ট্য নিয়ে পাঠককে হঠাৎ একটা ভিন্ন জগতে ঢুকিয়ে দেয়। পাঠক তার চিরকালের চেনা জগতকেই আবার নতুন করে দেখে, নতুন ভঙ্গিতে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০ উপলক্ষে এই লেখকের প্রথম গল্পগ্রন্থ ‌‘দৈনন্দিন গল্প’ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশ করেছে ঐতিহ্য প্রকাশনী। দৈনন্দিন গল্প-এর গল্পগুলো সমাজের দৈনন্দিন ঘটনাবলীরই চিত্রায়ন। লেখকের দৃষ্টিভঙ্গি এবং তার উপস্থাপন পাঠককে মুগ্ধ করবে নিশ্চিতভাবেই।

রাবণালাপ গল্পে পৌরাণিক রাবণের সঙ্গে লেখক গল্প করতে করতে পাঠককে একটা খোঁচা মেরে জানিয়ে দিচ্ছেন, বইমেলার মতো একটি জাতীয় পবিত্র তীর্থে কীভাবে পাপ ঘুরে বেড়ায়, যে পাপ বস্তুত ছড়িয়ে আছে দেশের সবখানে। পাপ গল্প পাঠককে মনে করিয়ে দেবে নিয়ন্ত্রণহীন সম্পদ কতটা বিভৎস্য হয়ে ওঠে আর তার পরিণতিইবা কী। দিনুর সংসার গল্পে ফুটে উঠেছে এ সমাজের খুব স্পষ্ট কিছু ছবি। 

একই সঙ্গে ভিন্ন পরিস্থিতিতে শত্রুর সঙ্গেও মানুষের মায়ার বন্ধন তৈরির এক অসাধারণ চিত্র পাওয়া যায় এ গল্পে। শানু এবং তুষারের ব্যক্তিত্ব তাদের প্রেমকেও ছাপিয়ে উঠেছে বর্ষার ফুল গল্পে। রক্ত-কথা-য় দেখতে পায় একজন বৃদ্ধ শিক্ষক কাজী আব্দুল হাফিজের হৃদয়ের রক্ত-ক্ষরণ। নিজ ছাত্রের প্রতারণায় ব্যথিত, তবু তাকে অভিশাপে আশির্বাদ-বঞ্চিত করে নীতি-ভ্রষ্ট হতে চাননি। 

এরকম দশটি গল্প নিয়ে লেখক তার প্রথম গল্পগ্রন্থ সাজিয়েছেন। দালালি তার রক্তে নেই, খুন, চম্বল গাছ, খ্যাতি, রিকশা-যাত্রা-র মতো অসাধারণ গল্পগুলো পাঠকের জন্য সুখপাঠ্য হবে, একথা বলাই যায়।

প্রথম গল্পগ্রন্থ সম্পর্কে লেখক বলেন— সাহিত্যে তো বেড়াতে আসিনি, থাকতে এসেছি। শুরুতে চটক দেখিয়ে এখানে কোনো লাভ নেই। তাই এ গ্রন্থ নিয়ে অতিরঞ্জিত কিছু না বলাই ভালো। এ গ্রন্থের গল্পগুলো আমাদের আশেপাশেই ঘুরঘুর করে। অনেকেই দেখে কিন্তু পুরোটা হয়তো সবাই বুঝে ওঠে না। আমি চেষ্টা করেছি, সমাজের আসল চেহারাটা সমাজের সামনে তুলে ধরতে; আয়নার মতো। দৈনন্দিন গল্পে ছবিগুলো কতটা স্পষ্ট হয়েছে, তা পাঠকই ভালো বলতে পারবেন। চরিত্র নির্মাণে আমি আত্মতুষ্ট নই। তবুও ধারণা করছি, দৈনন্দিন গল্প  গ্রন্থের বিভিন্ন গল্পের মূল চরিত্রগুলো পাঠককে আনন্দ দেবে।

দৈনন্দিন গল্প লেখকের প্রকাশিত দ্বিতীয় গ্রন্থ। তার প্রথম গ্রন্থ প্রতিবিম্ব (কাব্যগ্রন্থ) পাঠক-নন্দিত। প্রকাশ করেছে ঐতিহ্য প্রকাশনী। লেখকের দুটি গ্রন্থই বইমেলায় পাওয়া যাবে ঐতিহ্যের স্টলে (প্যাভিলিয়ন নং- ১৪, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান)।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বইমেলা-২০২০