প্রতিভাবান তিন নারীর চিত্রকর্ম নিয়ে প্রদর্শনী

প্রকাশ : ২১ মার্চ ২০১৮, ১৭:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

রাজধানীর র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে তিনজন প্রতিভাবান নারীর আলোকচিত্র নিয়ে দুই মাসব্যাপী প্রদর্শনী চলছে। আলোকচিত্র প্রদর্শনীটির পৃষ্ঠপোষকতা করেছে র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেল এবং দৃক ইমেজ। যেখানে প্রতিশ্রুতিশীল নারী ফটোগ্রাফাররা তাদের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা শেয়ার করছেন।

দুই মাস ব্যাপী এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীটির নাম সেলফ অ্যান্ড দি আদারস। যাদের উৎসর্গ করে আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি আয়োজন করা হয়েছে সেই তিন নারী হলেন- আগমাখাইচাক, ফারহানা সেতু এবং সালমা আবেদিন প্রীতি। প্রদর্শনীর বিভিন্ন আলোকচিত্রের মাধ্যমে সমাজে নারীর কার্যকর ভূমিকা তুলে ধরা হয়েছে।

গত নারী দিবসে এই দুই মাসব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীটি শুরু হয়। ইতোমধ্যে জমে উঠেছে প্রদর্শনী। সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ র্যা ডিসনের গ্রাউন্ড ফ্লোরের গ্যালারীতে প্রদর্শনীটি উপভোগ করছেন। নানা ধরণের ইতিবাচক মন্তব্য করে দর্শনার্থীরা নারীর ক্ষমতায়নকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন। প্রদর্শনীটি প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

আগমাখাইচাক হলেন একজন পাহাড়ি আদিবাসি। যিনি হারমোনি নামের তার কাজের মাধ্যমে চট্টগ্রামের পাহাড়ি জনপদের সাংস্কৃতিক পরিচয় এবং বিভিন্ন সামাজিক অবস্থা তুলে ধরেন। তার হারমোনি নামের চিত্রকর্মটি ২০১৩ সালে আন্তর্জাতিক ফটোগ্রাফি উৎসবে (ছবিমেলা-৭), ২০১৫ সালে চীনের ডালি আন্তর্জাতিক ফটোগ্রাফি উৎসব এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে প্রদর্শিত হয়।

ফারহানা সেতুও ব্যতিক্রমী আয়োজন নিয়ে হাজির হয়েছেন। তার চিত্রকর্মের নাম লুকেমিয়া ফাইটারস। এসব চিত্রকর্মের মাধ্যমে লুকেমিয়া রোগে আক্রান্ত বাচ্চাদের জীবন সংগ্রামের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। এসব ছবি দেখে রোগটি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা এবং সচেতনতা বাড়বে।

সালমা আবেদিন প্রীতি সাধারণ মানুষের শারীরিক অক্ষমতা নিয়ে কাজ করেছেন। ট্রান্সসুলেন্স নামে চিত্রকর্মের মাধ্যমে শারীরিকভাবে অক্ষম মানুষের নানা ধরনের সংগ্রামের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। তার চিত্রকর্মটি এর আগে প্রদর্শিত হয়েছে ২০১৭ সালে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিতব্য এশিয়া পিস ফেস্টিভাল, ২০১৫ সালে ফটো কাঠমান্ডু, ছবিমেলা ৬ ও ৭, ঢাকা আর্ট সামিট (২০১২,২০১৬ এবং ২০১৭)সহ বিভিন্ন চিত্র প্রদর্শনীতে অংশ নেন।