এবার হিমালয়ের ‘আমা-দাবলাম’ অভিযানে যাচ্ছেন এম এ মুহিত

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ অক্টোবর ২০১৮, ২১:৩৫ | অনলাইন সংস্করণ

এম এ মুহিত
এম এ মুহিত। ফাইল ছবি

বাংলা মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের পক্ষ থেকে ১৫ অক্টোবর আমা-দাবলাম পর্বত অভিযান শুরু করবেন দেশের পর্বতারোহী এম এ মুহিত।

এ উপলক্ষে শুক্রবার রাজধনীর জাতীয় প্রেসক্লাবে মুহিতকে জাতীয় পতাকা প্রদান করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা অর্থনীতিবিদ হোসেন জিল্লুর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা মোবাশ্বের হোসেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, অভিযানের পৃষ্ঠপোষক ইস্পাহানী টি লিমিটেডের জিএম মার্কেটিং ওমর হান্নান ও ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেডের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসান ইকবাল।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নজরকাড়া সৌন্দর্য হলেও ৬ হাজার ৮১২ মিটার বা ২২ হাজার ৩৫০ ফুট উঁচু আমা-দাবলামের গিরিপথ বেশ দুর্গম। একেবারে ৯০ ডিগ্রি খাড়া। আর এই শক্ত পাথরের দুর্গম পর্বত জয়ের মিশনে যাচ্ছেন বাংলাদেশের ৪৮ বছরের পর্বতারোহী এম এ মুহিত। এছাড়া মুহিত এরই মধ্যে এভারেস্ট, একবার করে চো-ইয়ো, মানাসলু পর্বতশৃঙ্গে মেলে ধরেছেন বাংলাদেশের পতাকা। এছাড়া হিমালয়ের সাত হাজার মিটারের একটি এবং ছয় হাজার মিটারে ছয়টি পর্বত শিখর জয় করেছেন।

আরও জানানো হয়, বাংলা মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের পক্ষ থেকে আমা-দাবলাম জয়ের মিশন মুহিত যাত্র শুরু করবেন ১৫ অক্টোবর। তবে তার সঙ্গে নেপাল যাচ্ছেন আরও পাঁচজন। তাদের নাম- ইফফাত ফারহানা, কাওসার রূপম, মারুফ সালাম, আরিফুল ইসলাম ও সুজয় সেনগুপ্ত। মুহিতসহ মোট ছয়জন পর্বতারোহীর মধ্যে পাঁচজন আমা-দাবলামের বেসক্যাম্পে ১৫ হাজার ৪২০ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত আরোহণ করে দেশে ফিরে আসবেন। তবে মুহিত তার শেরপাকে নিয়ে আমা-দাবলামের চূড়ায় উঠবেন।

সংবাদ সম্মেলনে এম এ মুহিত বলেন, আমা-দাবলাম খুব সুন্দর একটি পর্বত। এর শৃঙ্গের ঠিক নিচে গলার মাঝখানে সাদা জমাট বরফ থাকে। দূর থেকে দেখলে মনে হবে যেন কোনো মেয়ের গলার হার। আমি এভারেস্টের চূড়া থেকে আমা-দাবলামকে দেখছিলাম।

তিনি বলেন, এভারেস্ট দেখতে খুব একটা সুন্দর নয়। কিন্তু আমা-দাবলাম বেশ সুন্দর। তাই অনেক পর্বতারোহীরই এই পর্বত জয়ের ইচ্ছে থাকে। আমারও তেমনই ইচ্ছে। তবে ইচ্ছে করলেই তো সহজে পূরণ হয় না। আশা করছি সব বিপদ টপকে আমা-দাবলামের চূড়ায় বাংলাদেশের পতাকা উড়াতে পারব। তাই চলতি মাসের ১৫ তারিখে নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করে লুকালা বিমানবন্দর থেকে ৩০ দিনব্যাপী অভিযান পরিচালনা করব। আশা করি নভেম্বরের ৭ তারিখের মধ্যে পর্বতটি জয় করতে পারব।

হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, মুহিত কেবল ব্যক্তির খ্যাতি তুলে ধরছে না, ধারাবাহিকভাবে পর্বতারোহণের মাধ্যমে একটি প্রজন্মকেও উৎসাহিত করার চেষ্টা করছেন। এই অর্জনের জন্য অধ্যবসায়, দলীয় চেষ্টার প্রয়োজন। আশা করছি মুহিত বিপদ ছাড়াই এবার পর্বত জয় করবেন।

মোবাশ্বের হোসেন বলেন, বাংলাদেশ যদি স্বাধীন না হতো তাহলে শুধু নেপাল পর্যন্ত যাওয়া হতো। এর বেশি কিছু হতো না। স্বাধীনতা আমাদের স্বপ্নের দুয়ার খুলে দিয়েছে। আমরা বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখরে দেশের পতাকা ওড়াতে পেরেছি, যে পতাকা ৩০ লাখ শহীদের প্রাণের বিনিময়ে অর্জন করেছি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter