কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেসে এসি বগি চালু

রাষ্ট্রপতি ঘোষিত বাইপাস রুটের প্রতীক্ষায় কিশোরগঞ্জবাসী

  এ টি এম নিজাম, কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ২৩:২০ | অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রুটে এসি কোচ সংযুক্তের খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ভিড় করেন দলীয় নেতাকর্মীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ।
ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রুটে এসি কোচ সংযুক্তের খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ভিড় করেন দলীয় নেতাকর্মীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ।

এবার কিশোরগঞ্জ থেকে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনকারী অন্যতম আন্তঃনগর ট্রেন কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেসে একটি এসি কোচ চালু হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে নতুন এসি কোচ সংযুক্ত হয়।

রাজনীতির বরপুত্র কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ঘোষণার মাত্র ১০ দিনের মধ্যে এ কোচ সংযুক্তির ঘটনা ঘটেছে। এবার ভৈরব রেলওয়ে জংশনে ইঞ্জিন পাল্টানোর জন্য দীর্ঘ সময় ক্ষেপণের হাত থেকে রক্ষার জন্য একটি বাইপাস রেলপথ নির্মাণের বিষয়টি বাস্তবায়নের পালা। এর মাধ্যমে কিশোরগঞ্জবাসীর দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন পূরণ হবে।

ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রুটে এসি কোচ সংযুক্তের খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ভিড় করেন দলীয় নেতাকর্মীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ। কিশোরগঞ্জের স্থানীয়রা প্রথমদিনের এসি কোচের যাত্রীদের ফুল দিয়ে বরণ করে উদযাপন করেছেন।

পরে মিলিত হলেন সংক্ষিপ্ত আনন্দ সমাবেশে। এতে যোগ দেন কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কিশোরগঞ্জের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাভভোকট শাহ আজিজুল হক, উইমেন চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ফাতেমা তুজ জোহরা, সম্মিলিত নাগরিক ফোরামের আহ্বায়ক এনায়েত করীম অমি প্রমুখ।

ঢাকা-কিশোরগঞ্জ সরাসরি ট্রেনের দাবি

সমাবেশ থেকে তারা বাইপাস রেলপথ তৈরি করে ঢাকা-কিশোরগঞ্জ সরাসরি ট্রেনের দাবি করেন। তারা আশা করেন ভৈরব স্টেশনে ইঞ্জিন ঘুরানোর মাধ্যমে সময় নষ্ট হওয়ার বিড়ম্বনা থেকে অচিরেই কিশোরগঞ্জবাসী মুক্তি পাবে। বক্তরা মহামান্য রাষ্ট্রপতির আশ্বাস বাস্তবায়নে রেলমন্ত্রী ও সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিদের প্রতি অনুরোধ জানান।

বক্তারা বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের পর পরিবহন ব্যবসায় জড়িত কোটারি স্বার্থান্ধ গোষ্ঠীর বাধার কারণে মিটারগেজ ও ব্রডগেজ রেলপথ নির্মাণ ও সংস্কারকাজ শেকলে আটকা পড়ে। যার কারণে গতিহীন ও শ্রীহীন হয়ে পড়ে রেলপথ। অথচ এখনও একমাত্র রেলযোগাযোগই এখনও আরামদায়ক ও নিরাপদ যোগাযোগব্যবস্থা হিসাবে স্বীকৃত। উপরন্তু সাধারণ-দরিদ্র এবং সচেতন অভিজাত শ্রেণির লোকজন এ যোগাযোগ মাধ্যমটিকেই অবলম্বন করেন।

ট্রেনের টিকিটের ব্যাপক চাহিদা

বক্তারা আরও বলেন, কিশোরগঞ্জের মানুষ রেলপথকে এতটাই পছন্দ করেন যে, রেলের টিকিট নির্ধারিত দিনের ৩-৪ দিন আগে এসেও আসনসহ টিকিট পাওয়া যায় না। যার কারণে বেশিরভাগ মানুষ স্ট্যান্ডিং টিকিট করেই যাতায়াত করেন। রাষ্ট্রপতি মহোদয় এ অঞ্চলের মানুষের মনের কথাটি বুঝতে পেরেছেন। যার কারণে নতুন আরেকটি ট্রেন যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন। এটি দ্রুত বাস্তবায়ন হলে কিশোরগঞ্জের মানুষ তাঁকে আজীবন মনে রাখবে। আর এ রুটটি যথাযথ সংস্কার ও পুনর্গঠনসহ আরও গতিশীল করলে সরকার শত শত কোটি টাকা বাড়তি রাজস্ব আদায় করতে পারে।

প্রসঙ্গত, তিন দিনের সরকারি সফরে কিশোরগঞ্জ এসে গত ৯ অক্টোবর সরকারি তার রাজনৈতিক ও শিক্ষা জীবনের হাজারো স্মৃতি বিজড়িত প্রাণের বিদ্যাপীঠ গুরুদয়াল কলেজ এর মাঠে আয়োজিত এক নাগরিক সংবর্ধনায় যোগ দিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেছিলেন, এখানকার ট্রেনে কোন এসি কোচ না থাকায় এক শ্রেণির যাত্রী সাধারণকে অবর্ণনীয় কষ্ট ও দুর্ভোগ পোহাতে হয়। আমি খুব শীঘ্র এসি কোচের ব্যবস্থা করবো। এ সময় তিনি এ পথে রেল ভ্রমনের সময় ভৈরব জংশনে ইঞ্জিন ঘুরানোর কারণে দীর্ঘ সময় নষ্ট হওয়ার বিড়ম্বনার কাহিনী তুলে ধরে বলেছিলেন, এখন সময় এসেছে বাইপাস রেলপথ তৈরি এ বিড়ম্বনা লাঘবের।

নাগরিক সংবর্ধনায় কিশোরগঞ্জবাসীকে আশার বাণী শুনিয়ে তিনি বঙ্গভবনে ফেরার পরপরই রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হককে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানান।

আরও পড়ুন

►কিশোরগঞ্জ-ঢাকা সরাসরি ট্রেনের ব্যবস্থা হচ্ছে: রাষ্ট্রপতি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter