আগাম জামিনের জন্য হাইকোর্টে জাফরুল্লাহ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী
গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। ফাইল ছবি

আশুলিয়ায় জমি দখল, ভাঙচুর ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে হওয়া মামলায় আগাম জামিন নিতে হাইকোর্টে হাজির হয়েছেন গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

রোববার বেলা ১১টার দিকে তিনি হাইকোর্টে হাজির হন।

বিচারপতি মোহাম্মদ আব্দুল হাফিজ ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চে তার জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

গত সোমবার রাতে মানিকগঞ্জের মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী ছাড়াও গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সাইফুল ইসলাম শিশির, গণবিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দেলোয়ার হোসেন ও আওলাদ হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার বাদীর অভিযোগ, ২০০৩ সালে পাথালিয়া মৌজার প্রায় চার একর ২৪ শতাংশ জমি তিনিসহ আরও দুজন কিনেছিলেন। ওই জমি কেনার জন্য জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও তার লোকজন তাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন। নামমাত্র মূল্যে জমি বিক্রির জন্য তিনি ও তার শরিকদের চাপ দেয়ার পাশাপাশি জীবননাশের হুমকি দেয়া হচ্ছিল বলেও অভিযোগ করা হয়।

বাদীর আরও অভিযোগ, গণস্বাস্থ্যকেন্দ্র তাদের জমি থেকে জোর করে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মাটি কেটে নিয়ে গেছে। এ ধরনের অত্যাচারে তিনি একপর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং বাইপাস সার্জারি করতে হয়।

এসব ঘটনায় সাভার ও আশুলিয়া থানায় একাধিক জিডি করা হয়েছিল বলে জানান মোহাম্মদ আলী।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, সর্বশেষ গত ১৪ অক্টোবর মোহাম্মদ আলী ও তার শরিক আনিসুর রহমান জমিতে থাকাবস্থায় জাফরুল্লাহর সহযোগী দেলোয়ার হোসেন (৫৭), সাইফুল ইসলাম শিশির (৫৫) ও আওলাদ হোসেনসহ (৪৮) ৩-৪ জন জমিতে ঢুকে জানান, তারা জাফরুল্লাহর নির্দেশে এসেছেন।

পরে ওই জমি তাদের কাছে বিক্রির জন্য চাপ দেয়া হয়। জমি বিক্রি না করলে এক কোটি টাকা চাঁদা দাবি করেন তারা।

চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা হুমকি দেন এবং জমির কাঁটাতারের বেষ্টনী, সাইনবোর্ড ও একটি গেট ভাঙচুর করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter