ছয় দফা দাবিতে তাবলিগ জামাতের বিক্ষোভের ডাক

প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

  ঢাকা (উত্তর) প্রতিনিধি

টঙ্গী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে মুরব্বীরা। ছবি: যুগান্তর

টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে গত ১ ডিসেম্বর তাবলিগের সাথী, আলেম-ওলামা ও ছাত্রদের ওপর সাদপন্থীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

বুধবার সকালে টঙ্গী প্রেসক্লাবের এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

টঙ্গীর ওলামায়ে কেরাম ও তাবলিগের সাথীদের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন টঙ্গীর জামিয়া নুরীয়া ইসলামীয়া মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা জাকির হোসাইন, দারুল উলূম মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি মাসউদুল করীম, বাইতুল আকরাম মসজিদ ও মাদ্রাসা কমপ্লেক্সের প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম মাওলানা ইউনুস শাহেদী, টঙ্গী দারুল উলূম মাদ্রাসার শিক্ষা সচিব মুফতি মুহাম্মদ আবু বকর কাসেমী, টঙ্গী জামিয়া রহমানিয়া সওতুল হেরা মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা ইসমাইল ওরফে আলমগীর, জামিয়া আহসানুল উলূম হাকিমিয়া মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা আব্দুর রাকিব আকন্দ, দারুস সালাম মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি মুহাম্মদ ইয়াকুব, টঙ্গী ভরান জামে মসজিদের খতিব আলহাজ মাওলানা ক্বেরামত আলী, ইমাম আবু হানিফা (রহ.) মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা ইকবাল হোসাইন মাসুম, সরকার বাড়ি জামে মসজিদের খতিব মাওলানা রিয়াজুল ইসলাম মল্লিক, তাবলিগের জিম্মাদার সাথী ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হক, আবু উবাইদা, তারেক মাহমুদ, আব্দুস সাত্তার ও ব্যবসায়ী হাজী আবু তাহের প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা ৬ দফা দাবি তুলে ধরে বলেন, গত পহেলা ডিসেম্বর ইজতেমা ময়দানে প্রস্তুতিকাজ চলাকালে মাওলানা ওয়াসিফুল ইসলাম ও বাহাউদ্দিন নাসিম অনুসারী সন্ত্রাসীদের নগ্ন হামলা ও হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা জানাই।

তারা আরও বলেন, হামলার ঘটনায় জড়িত ও উসকানিদাতাদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনে আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে এবং দ্রুত কাকরাইলের সব কার্যক্রম থেকে ওয়াসিফ ও নাসিম গংদেরকে বহিষ্কার করতে হবে।

বক্তারা বলেন, আগামী বিশ্ব ইজতেমা পূর্বঘোষিত প্রথম ধাপ ১৮, ১৯ ও ২০ জানুয়ারি এবং  দ্বিতীয় ধাপ ২৫, ২৬ ও ২৭ জানুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠানের কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে ছয় দফা দাবিতে আগামী ৭ ডিসেম্বর শুক্রবার বাদ জুমা টঙ্গীর সব মসজিদ ও এলাকাতে তৌহিদি জনতার অংশগ্রহণে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট সবাইকে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে কলেজগেট এলাকায় জড়ো হওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়াও দাবি বাস্তবায়নে কালক্ষেপণ করা হলে পরবর্তীতে আরও কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানান মুরব্বিরা।