সিনিয়র সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে বিএফইউজে-ডিইউজের শোক

প্রকাশ : ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:৪৩ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

সিনিয়র সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর। ফাইল ছবি

সিনিয়র সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)।

বুধবার এক যৌথ বিবৃতিতে এক শোক জানান বিএফইউজে সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ডিইউজে সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী।

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের জ্যেষ্ঠ সম্পাদক আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে সাংবাদিকতা জগতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হলো- তা সহজে পূরণ হওয়ার নয়। তিনি শুধুমাত্র একজন সাংবাদিকই ছিলেন না, সাংবাদিকতার আলোকবর্তিকা হিসেবে কাজ করে গেছেন। পেশাদার সাংবাদিক হিসেবে সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ে ও মর্যাদা রক্ষায় নিয়োজিত আমানুল্লাহ কবীরের মৃত্যুতে সাংবাদিক সমাজই ক্ষতিগ্রস্ত হলো। এ ক্ষতি সহজে কাটিয়ে ওঠা যাবে না।

বিবৃতিতে নেতারা আমানুল্লাহ কবীরের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

প্রায় সাড়ে চার দশকের সাংবাদিকতা জীবনে আমানুল্লাহ কবীর বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক, আমার দেশ ও দিনকালের সম্পাদক, ইন্ডিপেনডেন্ট ও টেলিগ্রাফের নির্বাহী সম্পাদক, ডেইলি স্টার ও নিউনেশনে বার্তা সম্পাদক ছাড়াও বিভিন্ন গণমাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন প্রবীণ সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর।

আমানুল্লাহ কবীর দীর্ঘদিন ধরে কিডনি, লিভার ও ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে ও তিন ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব এবং গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।