চাকরি দেয়ার নামে কোটি টাকা হাতিয়ে দুই প্রতারক উধাও

  ঝালকাঠি প্রতিনিধি ২০ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

প্রতারণা

ঝালকাঠিতে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণ করে কোটি টাকা নিয়ে দুই প্রতারক উধাও হয়েছে।

মার্কেন্টাইল ইসলামিক লাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানী নামে একটি বিমা কোম্পানীর দুই কর্মকর্তা চাকরি দেয়ার নামে দুই শতাধিক বেকার যুবক-যুবতীর কাছ থেকে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে গেছেন।

প্রতারিতরা রোববার সকালে বন্ধ হওয়া ওই অফিসের সামনে বিক্ষোভ মিছিল ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করে। প্রতারিতদের মধ্যে অনেকেই শিক্ষার্থী। এরা তাদের অর্থ ফেরত ও তদন্ত পূর্বক প্রতারকদের শাস্তির দাবি করেছেন।

ভুক্তভোগীরা জানান, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ঝালকাঠি শহরের নতুন কলেজ সড়কের একটি ভবনের দ্বিতীয় তলা ভাড়া নিয়ে মার্কেন্টাইল ইনসিওরেন্স কোম্পানি নামে একটি বিমা কোম্পানি তাদের সাইবোর্ড টানিয়ে কার্যক্রম শুরু করে।

এখানে টাকা বিনিয়োগ করলে বেশি মুনাফা ও চাকরি করে বেতন পাওয়া যাবে এমন প্রলোভোন দেখিয়ে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা জাকির হোসেন ও সাফিন গ্রাহকদের কাছ থেকে ১০ হাজার থেকে শুরু করে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত জামানত নিয়ে বীমা কর্মী পদে নিয়োপত্র দেন।

নিয়োকৃতদের দায়িত্ব দেয়া হয় গ্রাহকদের পলিসি করানো। যে যত বেশি পলিসি করতে পারবে তার বেতন ও বেশি হবে। এমন লোভনীয় বিজ্ঞাপন দেয়। এদের ফাঁদে পা দেয় প্রায় দুই শতাধিক যুবক-যুবতী। এর মধ্যে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ও গৃহিণী।

এরপর এখানে তিন মাস অতিবাহিত হলেও এদের কোন বেতন ভাতা পরিশোধ করা হয়নি। জানুয়ারি মাসের প্রথম দিকে শহরের ইউসুফ কমিশনার সড়কের ‘উত্তরন’ নামের একটি ভবনে অফিসের কার্যক্রম শুরু করে। গত শনিবার হঠাৎ করে অফিস কক্ষ তালাবদ্ধ করে লাপাত্তা হয়ে যায় জাকির হোসেন ও সাফিন।

এরপর থেকে প্রতারিতরা তাদের অর্থ ফেরত পেতে আন্দোলনে নামে। ভুক্তভোগীদের অনেকেই ধার করে এখানে বিনিয়োগ করেছেন। প্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ায় এখন তারা পথে বসেছেন। প্রতারক জাকির হোসেন ও সাফিনের বাড়ি বরিশালে বলে জানা গেছে।

মার্কেন্টাইল ইসলামিক লাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানি থেকে প্রতারিত হওয়া সবুর হোসেন বলেন, ‘আমি দশম শ্রেণিতে পড়ি। একটি বিজ্ঞাপন দেখে এখানে প্রথমে ১০ হাজার টাকা দেই। এরা বলেছেন আপনি যে টাকা বিনিয়োগ করেছেন তা থেকে একটি লাভ্যাংশ পাবেন। আর আপনি আমাদের এখানে চাকরিও করবেন। আপনাকে মাসে ১০ হাজার টাকা করে বেতন দেয়া হবে। আপনার কাজ হবে এখানে বিভিন্ন লোকের টাকা জমা রেখে তাদের পলিসি করিয়ে দেয়া। এখন আমার চার মাসের টাকা বকেয়া আছে। আর জমা রাখা টাকাতো রয়েছেই।

ঝালকাঠি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতাহার মিয়া বলেন, ‘অর্থ বিনিয়োগ করার সময় যাচাই-বাছাই করে বিনিয়োগ করা উচিত ছিল। আর যারা এখানে অর্থ বিনিয়োগ করে প্রতারিত হয়েছেন তাদের প্রতি পরামর্শ হল তারা যেন দ্রুত এ বিষয়ে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×