মন্ত্রণালয়ে কোনো দুর্নীতি হতে দেব না: পরিকল্পনামন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট,তাহিরপুর ২৫ জানুয়ারি ২০১৯, ২৩:২১ | অনলাইন সংস্করণ

তাহিরপুরে গণ সংবর্ধনায় বক্তব্য দেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান
তাহিরপুরে গণ সংবর্ধনায় বক্তব্য দেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, ‘আমাদের দুর্নীতি দমন কমিশন অনেক শক্তিশালী। বিভিন্ন জায়গায় তারা দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চালিয়ে অনেককে বিচারের আওতায় নিয়ে এসেছে। সরকারের ভেতরে যারা দুর্নীতি করবে আমাদের নজরে এলে তাদেরকে কোনো ছাড় দেব না। দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে দ্রত চরম শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে কোনো দুর্নীতি হতে দেব না। আমি দুর্নীতি করবো না, যারা আমার সঙ্গে কাজ করছে তারাও করবেন না।’

শুক্রবার সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে জনসভায় যোগদানের আগে শহরের মল্লিকপুর এলাকায় সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্যের বাসভবনে গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এমএ মান্নান বলেন, আমরা দুর্নীতির পক্ষে নই। আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- দুর্নীতি কোনোমতেই সহ্য করবেন না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর শূন্য সহিষ্ণুতার নীতি বজায় রয়েছে। তিনি প্রথম সভায় মন্ত্রীদের বলেছেন আমরা সবাই জনগণের নজরদারিতে আছি। মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রীর নজরদারিতে আছেন। তবে প্রত্যেক কর্মকর্তা, প্রত্যেক ব্যক্তি নিজে যদি দুর্নীতিমুক্ত থাকেন তাহলে একটি দুর্নীতিমুক্ত জাতি গড়ে তোলা যাবে।

তিনি বলেন, সম্পূর্ণ দুর্নীতিমুক্ত বা শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত জাতি আমার জানা মতে পৃথিবীর কোথাও নেই। সব দেশেই দুর্নীতি রয়েছে কম আর বেশি। আমরা বেশির কোঠায় এখনও আছি। আগের সময়ের তুলনায় দুর্নীতি দমনে আমাদের অনেক উন্নতি হয়েছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, মেগা প্রকল্পে মেগা ব্যয় হয়। মেগা ব্যয় হলে মেগা লোভ, মেগা দুর্নীতি, মেগা অপচয় হয়। এগুলো কমানোর জন্য আমাদের বিধিবিধান নিয়মকানুন রয়েছে। সেগুলো মেনে চললে এসব কমে আসবে। আমরা প্রতিনিয়ত এসব ব্যবস্থা উন্নত ও শক্তিশালী করছি। এভাবে আমরা প্রকল্পের দুর্নীতি কমানোর জন্য চেষ্টা করছি। এতো কিছুর পরও যারা দুর্নীতি করার চেষ্টা করবে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে এসে চরম শাস্তি দেবো।

সুনামগঞ্জের হাওর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হাওরের পাকা ধান পরিবহনের জন্য কোনো প্রকল্প যদি কৃষি মন্ত্রণালয় বা খাদ্য মন্ত্রণালয় পরিকল্পনা কমিশনে নিয়ে আসে, তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে আমি মনে করি হাওরের মানুষের চলাচলের জন্য সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করতে হবে। এ কাজটি ৭০ ভাগ বাস্তবায়ন হয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, হাওরে সাবমার্জিবল সড়কের কাজ শুরু হয়ে গেছে। আগামীতে এ কাজ আরও সম্প্রসারণ করা হবে।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মীরা ছাড়াও সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×