সৌদি সরকারের কারণে হজের খরচ বেড়েছে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:১০ | অনলাইন সংস্করণ

সচিবালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী  শেখ মো. আবদুল্লাহ। ছবি: সংগৃহিত
সচিবালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ। ছবি: সংগৃহিত

এ বছর হজযাত্রার খরচ বাড়েনি বলে দাবি করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আবদুল্লাহ। মঙ্গলবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি হজযাত্রার খরচ না বাড়ার পেছনের যুক্তি তুলে ধরেন। এ সময় তিনি বলেন, যে টুকু বেড়েছে তা সৌদি সরকারের কারণে।

এ সময় ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, হজ এজেন্সিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) এর মহাসচিব এম. শাহাদাত হোসাইন তসলিমসহ পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকে ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-২০১৯’ এবং ‘হজ প্যাকেজ-২০১৯’ এর খসড়া অনুমোদন দেয়া হয়। এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের খরচ প্যাকেজ-১ এ চার লাখ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ তিন লাখ ৪৪ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর প্যাকেজ-১ এ তিন লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা নির্ধারিত ছিল। সেই হিসেবে সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এ এবার ২০ হাজার ৫৭১ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ ১২ হাজার টাকা বেশি খরচ পড়বে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বলেন, ‘আপনারা দেখছেন গত বছরের তুলনায় প্যাকেজ-১ এ এবার ২০ হাজার ৫৭১ টাকা বেড়েছে। কিন্তু সৌদি সরকার সার্ভিস চার্জসহ অন্যান্য খরচ বাড়িয়েছে ২৪ হাজার ৯৮০ টাকা।’ সৌদি সরকারের বাড়ানো চার্জ কারও কমানোর ক্ষমতা নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্যাকেজ-২ এ সৌদি সরকার চার্জ বাড়িয়েছে ১৯ হাজার ৩৫ টাকা। কিন্তু গতবছরের তুলনায় বেড়েছে ১২ হাজার টাকার মতো।’

তাহলে খরচ কোথায় বেড়েছে সাংবাদিকদের কাছে প্রশ্ন রেখে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এবছর প্যাকেজ ১ এর জন্য প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছিল ৪ লাখ ৪২ হাজার ৯১০ টাকা আর প্যাকেজ ২ এর জন্য ব্যয় ধরা হয়েছিল ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা। বলুন বেড়েছে কিনা? আশা করি এ দু’টি তুলনায় আপনাদের বুঝতে বাকি নেই যে আমরা হজের খরচ কমিয়েছি।’

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১০ আগস্ট হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। এবার বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যেতে পারবেন। এ বছর যারা হজে যেতে চান তাদের পাসপোর্টের মেয়াদ ২০২০ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত থাকতে হবে। এবার রমজান মাসের আগেই সৌদিতে বাড়ি ভাড়া করতে হবে। সৌদির বাড়ি ভাড়া এবং সার্ভিস ও ক্যাটারিং চার্জ অনলাইনে জমা দিতে হবে। হজযাত্রীরা সৌদি আরবে যে বাড়িতে থাকবেন এবার থেকে ওই বাড়ির ঠিকানা পাসপোর্টের সঙ্গে জুড়ে দেয়া হবে বলেও সোমবার জানিয়েছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব

ঘটনাপ্রবাহ : হজ ২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×