হাত হারানো রাজীবের মৃত্যুর মামলার প্রতিবেদন পেছাল

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৩ মার্চ ২০১৯, ২০:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

হাত হারানো রাজীবের মৃত্যুর মামলার প্রতিবেদন পেছাল
রাজীব হোসেন। ফাইল ছবি

দুই বাসের চাপে সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের ছাত্র রাজীব হোসেনের হাত হারানোর পর মৃত্যুর মামলার প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৮ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বুধবার মামলার প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন শাহবাগ থানা পুলিশ তা দাখিল করেনি। এ জন্য ঢাকা মহানগর হাকিম মো. সারাফুজ্জামান আনছারী প্রতিবেদন দাখিলে পরবর্তী ওই দিন ধার্য করেন।

আদালত সূত্র জানায়, শিক্ষার্থী রাজীব মতিঝিল থেকে বিআরটিসি দোতলা বাসে ওঠে মহাখালীর উদ্দেশে রওনা হন।

গত বছরের ৩ এপ্রিল দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে শাহবাগ থানাধীন পান্থকুঞ্জ পার্কসংলগ্ন রাস্তার ওপর পৌঁছানো মাত্রই বিআরটিসি বাসটি ট্রাফিক সিগন্যালে পড়ে।

এ সময় বাসের পেছনের দরজার কাছে দাঁড়ানো অবস্থায় জরুরি প্রয়োজনে রাজীব তার ডান হাত বের করেন।

এরপর পরই হঠাৎ দ্রুত ও বোপরোয়া গতিতে পেছনের দিকে থেকে স্বজন পরিবহনের বাস এসে বিআরটিসি বাসের সঙ্গে পাল্লাপাল্লি করে ওভারটেক করার চেষ্টা করে।

ওই সময় দুই বাসের চাপে রাজীবের ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রাজীবের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে বিআরটিসি বাসচালক অহেদ আলীকে আটক করে। আর সেখানে গাড়ি রেখে পালিয়ে যায় স্বজন বাসের চালক মো. খোরশেদ। তবে তাকে পরে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওই বছরের ৫ এপ্রিল আসামিদের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ৮ এপ্রিল দুই দিনের রিমান্ড শেষে ওই দুই চালককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। বর্তমানে দুই আসামি কারাগারে রয়েছেন। শাহবাগ থানার এসআই মো. আফতাব আলী মামলাটি তদন্ত করছেন।

এদিকে গত বছরের ১৬ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজীব মারা যান।

ঘটনাপ্রবাহ : হাত হারানো রাজীব

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×