‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাস্তব ছবি কক্সবাজারের রামু জনপথ’

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

রামুর রাংকুট জগৎ জ্যোতি শিশু সদন প্রাঙ্গণে আয়োজিত সর্বধর্মীয় মিলনমেলায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ
রামুর রাংকুট জগৎ জ্যোতি শিশু সদন প্রাঙ্গণে আয়োজিত সর্বধর্মীয় মিলনমেলায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ। ছবি: সংগৃহীত

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ বলেছেন,কক্সবাজার জেলার রামু জনপথে হাজার বছর ধরে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ও মুসলমানরা যেভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সহকারে একসঙ্গে বসবাস করছে তা শুধু বাংলাদেশ নয়, বরং বিশ্বের জন্য আদর্শ।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বাস্তব ছবি হচ্ছে আজকের কক্সবাজার জেলার রামু জনপথ।

রোববার রামু উপজেলার রাংকুট জগৎ জ্যোতি শিশু সদন প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক সর্বধর্মীয় মিলনমেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ঐতিহাসিক রাংকুট বৌদ্ধবিহার, রাংকুট জগৎ জ্যোতি শিশুসদন এবং শ্রী শ্রী রামকুট তীর্থধাম পরিদর্শন করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, রামু জনপথে একদিকে যেমন ২৬৮ খ্রিস্টপূর্বে সম্রাট অশোক কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত ঐতিহাসিক রাংকুট বনাশ্রম মহাতীর্থ মহাবিহার রয়েছে, পাশাপাশি রয়েছে হিন্দু ধর্মের শ্রী শ্রী রামকুট তীর্থধাম/শ্রী শ্রী রাম চন্দ্রের কুটির যা খ্রিস্টপূর্ব ২৮০০ এ প্রতিষ্ঠিত। এর পাশাপাশি রয়েছে শত শত বছরের মুসলিম ও খ্রিস্টান জনগোষ্ঠীর বিভিন্ন নিদর্শন।

এ জনপথের সব ধর্মীয় সম্প্রদায়ের জনগণের মধ্যকার পারস্পরিক সহযোগিতামূলক মনোভাব সত্যিই অনুপ্রেরণাদায়ক, যা আমাকে দারুণভাবে মুগ্ধ করেছে।

এ সময় রামুর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য সংরক্ষণে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এবং সংস্কারে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সব সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, সব সম্প্রদায়ের মধ্যেই কিছু দুষ্টু লোক থাকে, যারা তাদের হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সুন্দর পরিবেশ নষ্ট করতে চায়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বাংলাদেশে সেসব দুষ্টুচক্রকে কঠোর হস্তে দমন করে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন।

সর্বধর্মীয় এ মিলনমেলায় পবিত্র কোরআন, ত্রিপিটক, গীতা এবং বাইবেল পাঠের মাধ্যমে সভার কার্যক্রম শুরু হয়। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির গুরুত্ব এবং রামু জনপথে সব ধর্মের মানুষের সহাবস্থানের শত শত বছরের ঐতিহ্যের কথা তুলে ধরে সভাপতির বক্তব্য রাখেন রামু এবং কক্সবাজার সদর উপজেলা আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। সর্বধর্মীয় মিলনমেলায় পরিণত হওয়া এ সভা পরিচালনা করেন বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্তভূষণ বড়ুয়া।

সভায় তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জহির আহমেদ, ট্রাস্টি অ্যাডভোকেট দীপংকর (পিন্টু), হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের তিন পার্বত্য জেলা এবং কক্সবাজার জেলা অঞ্চলের ট্রাস্টি প্রিয়োতোষ শর্মা চন্দন, প্যাগোডাভিত্তিক প্রাকপ্রাথমিক শিক্ষা প্রকল্পের পরিচালক শাখাওয়াত হোসেন,বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব জয়দত্ত বড়ুয়া, অ্যাডভোকেট রাশিদা পারভীন, অ্যাডভোকেট লিনা এবং স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় মুসলিম সম্পদায়ের পক্ষে রামু উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা মোহাম্মদ ফয়েজ, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের পক্ষে রাংকূট বনাশ্রম বৌদ্ধবিহারের অধ্যক্ষ কে. শ্রী জ্যোতিসেন থেরো, হিন্দু সম্প্রদায়ের পক্ষে রামপুর তীর্থধামের পরিচালনা কমিটি্র সদস্য সুশান্ত পাল বাচ্চু, এবং খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের পক্ষে রাংকুট জগতজ্যোতি শিশুসদনের মহাপরিচালক রিতা মালেকা শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×