এখানেই চিরঘুমে থাকবে জায়ান

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

এখানেই চিরঘুমে থাকবে জায়ান
জায়ানের কবর। ছবি: সংগৃহীত

ছোট্ট শিশু জায়ান বাবা-মায়ের সঙ্গে গিয়েছিল ভ্রমণে। ফিরল লাশ হয়ে। ফুটফুটে উচ্ছ্বল এই শিশুর মৃত্যু মেনে নেয়া কঠিন।

রোববার ইস্টার সানডেতে শ্রীলংকায় রেস্তোরাঁয় সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় নিহত হয় জায়ান। সন্ত্রাসবাদের শিকার হয় ছোট্ট শিশুটি।

আর এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি তার বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স। বাবাকে আইসিইউতে রেখে লাশ হয়ে ফিরল জায়ান। ছেলেকে শেষ দেখা দেখতে পারলেন না মশিউল।

জায়ানের লাশ দেশে এসেছে। চলছে দাফনের প্রস্তুতি।বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। তার কবরও প্রস্তুত।

বনানী করবস্থান প্রধান ফটক দিয়ে ঢুকে একটু বাম দিকে এগিয়ে যেতেই দেখা যাবে কবরটি।এর আশপাশে টাঙানো হয়েছে শামিয়ানা। মাত্র আট বছর বয়সী ছোট্ট জায়ান চৌধুরী এখানেই চিরনিদ্রায় শায়িত হবে।

জায়ান যেখানে শায়িত হবে তার পাশেই বনানী খেলার মাঠে ক্রিকেট খেলত জায়ান।ক্রিকেট তার প্রিয় খেলা। তার প্রিয় খেলোয়ার সাকিব আল হাসান।

জায়ান ছিল নানা শেখ সেলিমের প্রিয়মুখ। অবসরে তাকে নিয়ে খুনসুটিতে মেতে থাকতেন সেলিম। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ছোট্ট জায়ানকে আদর করতেন। জায়ান প্রধানমন্ত্রীকে দেখামাত্র দাদু দাদু বলে জড়িয়ে ধরত। চুমু খেত।

সেই আদরের নাতিকে শেষ দেখা দেখতে প্রধানমন্ত্রী বুধবার শেখ সেলিম বাসায় যান। সেখানে যাওয়ার পর এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। শেখ সেলিমসহ সব আত্মীয়স্বজন কান্নায় ভেঙে পড়েন।

আট বছরের জায়ানের লাশ বহনকারী শ্রীলংকান এয়ারলাইনসের ইউএল-১৮৯ ফ্লাইটটি বুধবার দুপুর ১২টা ৪২ মিনিটে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিমানবন্দরের টারমার্কে নাতি জায়ানের মরদেহ গ্রহণ করেন শেখ সেলিম।

সেখান থেকে রওনা হয়ে দুপুর দেড়টায় জায়ানের লাশ বহনকারী গাড়ি শেখ সেলিমের বনানীর বাসায় পৌঁছায়।

আসরের পর বনানী চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে বনানী কবরস্থানে।

রোববার ইস্টার সানডেতে বাবা-ছেলে সেখানকার সাংগ্রি লা হোটেলের নিচতলার রেস্তোরাঁয় সকালের নাশতা করতে গিয়ে বোমা হামলার শিকার হন। সেই সময় হোটেল কক্ষে থাকায় বেঁচে গেছেন জায়ানের মা শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া ও ছোট ভাই দেড় বছর বয়সী জোহান চৌধুরী।

গুরুতর আহত জায়ানের বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্সকে এখনই দেশে ফেরানো যাচ্ছে না। তিনি কলম্বোর একটি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। স্বামীর পাশে থাকায় ছেলের লাশের সঙ্গে দেশে ফিরতে পারেননি জায়ানের মা এবং শেখ সেলিমের মেয়ে শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া।

আজ বাদ আসর বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে চির নিদ্রায় শায়িত হবে ছোট্ট শিশু জায়ান।

ঘটনাপ্রবাহ : শ্রীলংকায় গির্জা ও হোটেলে সিরিজ হামলা

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×