নবম ওয়েজ বোর্ডের ঘোষণা জুনে

প্রকাশ : ৩০ মে ২০১৯, ২১:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ছবি-সংগৃহীত

সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থারকর্মীদের বেতন বাড়াতে আগামী জুনের মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

ওয়েজবোর্ড সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির প্রধান কাদের আরও জানান, নবম সংবাদপত্র ওয়েজ বোর্ডের রোয়েদাদ বাস্তবায়নে আগামী ১২জুন স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে যৌথ সভা করবে সরকার। আর জুনের মধ্যেই রোয়েদাদ বাস্তবায়নের ঘোষণা দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে নবম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন সম্পর্কিত মন্ত্রিসভা কমিটির সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। 

এ সময় কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিষয়টি আরো আগেই সমাধানে যেতে পারতাম, ঘোষণা দিতে পারতাম। আমাকে সভাপতি করার পরপরই আমি একটা মিটিং করার সুযোগ পেয়েছিলাম, সেদিন নোয়াবের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। এর পরপরই আমি অসুস্থ হই। পরে সিঙ্গাপুরে তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আলাপ-আলোচনা করে আমরা একটা বিষয়ে ঐক্যমত পোষণ করেছি, এই বিষয়টিকে আর ঝুলিয়ে রাখা সমীচীন হবে না। যতো দ্রুত সম্ভব সমাধান করে সবার কাছে মোটামুটি গ্রহণযোগ্য একটা ঘোষণা আমরা দেব। নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ডের বিষয়ে আমাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাব। 

ওবায়দুল কাদেরকে আহ্বায়ক করে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মন্ত্রিসভায় এই নবম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন সম্পর্কিত মন্ত্রিসভা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। ওইসময় মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানিয়েছিলেন, নবম ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিক-কর্মচারীদের পাঁচটি শ্রেণিতে ১৫টি গ্রেড রয়েছে।

প্রথম তিনটি গ্রেডে মূল বেতনের ৮০ শতাংশ এবং নিচের তিন গ্রেডে ৮৫ শতাংশ বেতন বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া ৬০-৭০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়। আর মূল বেতনের ২০ শতাংশ হারে বৈশাখী ভাতাযুক্ত করার সুপারিশ করা হয়েছে।
 
২০১৫ সালে সরকারি কর্মচারীদের নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণার পর নিজেদের নতুন বেতন কাঠামোর জন্য আন্দোলন করে আসছেন সাংবাদিকরা। দীর্ঘদিন বিষয়টি ঝুলে থাকার পর আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো. নিজামুল হককে প্রধান করে গতবছর ২৯ জানুয়ারি ১৩ সদস্যের নবম ওয়েজবোর্ড গঠন করা হয়।

এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য মূল বেতনের ৪৫ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করে সরকার, যা ২০১৮ সালের ১ মার্চ থেকে কার্যকর করার কথা বলা হয়। বিচারপতি নিজামুল হক গত ৪ নভেম্বর সচিবালয়ে তখনকার তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর কাছে প্রতিবেদন জমা দেন। সাংবাদিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের জানুয়ারিতে নবম ওয়েজ বোর্ড গঠন করে তথ্য মন্ত্রণালয়।