ঈদের দিনে যেসব খাবার পেলেন কারাবন্দিরা

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৫ জুন ২০১৯, ১৯:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

ঈদের দিনে যেসব খাবার পেলেন কারাবন্দিরা

উৎসাহ উদ্দীপনা মধ্য দিয়ে সারা দেশে পালিত হলো ঈদুল ফিতর। তবে রাজধানী ঢাকাসহ বেশ কয়েকটি জেলায় সারাদিনের বৃষ্টিতে কিছুটা হলেও ঈদ আনন্দ মাটি হয়েছে অনেকের।

এদিকে দেশবাসীর পাশাপাশি ঈদ উৎসব পালন করেছে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রায় ৯ হাজার বন্দি।

আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারের সব কয়েদি ও হাজতিদের জন্য বিশেষ খাবার-দাবার ও আনন্দ-বিনোদনের আয়োজন করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, 'কেরানীগঞ্জ কারাগারে বিশাল দুটি মাঠে প্রায় নয় হাজার বন্দিকে নিয়ে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ শেষে বন্দিদের সঙ্গে ঈদ আনন্দে মেতে ওঠেন কারা কর্মকর্তা ও কারারক্ষীরাও।'

কারা সুত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন ভোর ৭টায় বন্দিদের দেয়া হয় মুড়ি আর পায়েস।সকালে ঈদের নামাজের আগে তাদের প্রত্যেকের সেলে পৌঁছে যায় এই খাবার।

এ খাবার দিয়েই ঈদ উদযাপন শুরু করে ঢাকাসহ দেশের ৬৮টি কারাগারের বন্দিরা। খাবার খেয়ে তারা কারাগারের ভেতরের মসজিদে নামাজ আদায় করেছেন।

দুপুরে বন্দিদের জন্য বরাদ্দ ছিল সাদাভাত, রুই মাছ আর আলুর দম।

রাতে কারাবন্দিদের জন্য বিশেষ আয়োজন রেখেছে কারা কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছেন, এ আয়োজনে বন্দিরা পাবেন পোলাও, গরু বা খাসীর মাংস, ডিম, মিষ্টান্ন এবং পান-সুপারি।

প্রতিবারের মতো এবারও ঈদের দিন দেশের সব কারাগারে কয়েদি ও হাজতিদের সঙ্গে আত্মীয়-পরিজনদের দেখা করার বিশেষ সুযোগ দেয়া হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারেও বন্দিদের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পেয়েছেন পরিবার-পরিজনরা। এদিন পরিবার থেকে অনেকে সঙ্গে করে খাবার নিয়ে আসেন।

সে খাবার যাচাই বাছাই করে বন্দিদের সরবরাহ করতে নির্দেশ দিয়েছেন কারা কর্তৃপক্ষ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×