‘টিআইবির দাবি ঢালাও, পরিস্থিতি ওরকম নয়’

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৪ জুন ২০১৯, ১৯:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

‘টিআইবি’র দাবি ঢালাও, পরিস্থিতি ওরকম নয়’
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। ফাইল ছবি

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) জনপ্রশাসন নিয়ে যে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সেটি ‘ঢালাও’ বলে মন্তব্য করেছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেছেন, ‘পরিস্থিতি ওরকম নয়।’

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকের সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

রোববার ‘জনপ্রশাসনে শুদ্ধাচার: নীতি ও চর্চা’ শীর্ষক এক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে টিআইবি।

সেখানে তারা বলেছে, জনপ্রশাসনে পদায়ন ও পদোন্নতিতে রাজনৈতিক বিষয় প্রাধান্য পাচ্ছে, মেধা উপেক্ষিত হচ্ছে। এমনকি বিধিমালায় না থাকলেও পদোন্নতিতে গোয়েন্দা প্রতিবেদনকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘রিপোর্টটি আমি এখনও দেখিনি। আমাদের হ্যান্ডওভার করেনি তারা। নিউজে যেটুকু আসছে, আপনারা যেমন জানেন আমিও জানি। তবে তারা যেটা ঢালাওভাবে বলেছেন, (পরিস্থিতি) ওরকম নয়। আমাদের কাজগুলো ওরকম নয়। টিআইবির এই তথ্য সঠিক নয়। রাজনৈতিক বিবেচনায় নয়; যোগ্যতা, মেধা ও অন্যান্য শর্ত পূরণ হলেই সরকারি কর্মকর্তারা পদোন্নতি পান।’

টিআইবি বলেছে, বিধিবিধান অনুযায়ী চাকরিতে যোগ দেয়ার জন্য কোনো কর্মকর্তাকে সম্পদের হিসাব দিতে হয়। এরপর প্রতি ৫ বছর পরপর এই তথ্য আপডেট হবে। এটা করা হচ্ছে না- এ বিষয়ে শফিউল আলম বলেন, ‘এটা আমরা দিয়েছি, অনেক দিন চাওয়া হয়নি। চাওয়া হলে দিতে হবে। এটা নিয়ম। এটা জনপ্রশাসন হিসাব রাখে। ৫ বছর পর চাইবে দিবে, এটাই নিয়ম। না চাইলে দেয়ার কথা নয়।’

চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ নিয়েও আপত্তি তুলেছে টিআইবি- এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ মনে হয় এই সময়ে সবচেয়ে কম। আমরা অল্প কয়েকজন আছি। খুবই কম, মিনিমাম নাম্বার।’

টিআইবি আরও বলেছে, প্রশাসনে উপরের দিকে বেশি পদোন্নতি দেয়া হয়, কিন্তু নিচের পদগুলো ফাঁকা থাকে- এ বিষয়ে শফিউল আলম বলেন, ‘আমাদের রিক্রুটমেন্ট সেই পরিমাণ (শূন্য পদ) ফিলাপ করতে পারছে না। একজন সহকারী কমিশনার ৫ বছরের মাথায় ইউএনও হন। মাঝখানের পদগুলো ফাঁকা থেকে যায়, এটা সমস্যা। তার যোগ্যতা হয় সে ইউএনও হন, সে তখন ছোট পদে কাজ করবে কেন?’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×