মাশরাফিকে নিয়ে মন্তব্যের পর চিকিৎসক বদলির ঘটনা বিশ্ব গণমাধ্যমে

  যুগান্তর ডেস্ক ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৮:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

সামাজিক মাধ্যমে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার সমালোচনা করায় দেশের একজন শীর্ষ শিশু চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ ডা. রেজাউল করিমকে বদলি করার ঘটনা বিশ্ব গণমাধ্যম গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করেছে।

আলোচিত ওই বদলির ঘটনা নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি ও ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ান, ভারতের দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও সৌদি আরবের শীর্ষস্থানীয় সংবাদ মাধ্যম আরব নিউজসহ বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যম।

এএফপির খবরে উল্লেখ করা হয়, বদলি হওয়া চিকিৎসক রেজাউল করিম একজন শিশু ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ। ফেসবুকে মাশরাফির সমালোচনার কয়েক সপ্তাহ পরে তাকে রাঙামাটিতে বদলি করা হয়।

বার্তা সংস্থা এএফপি ওই চিকিৎসককে ফোন দিয়ে তার বক্তব্যও নেয়। এএফপিকে দেয়া সাক্ষাতকারে ডা. রেজাউল করিম বলেন, আমাকে রাঙামাটি মেডিকেল কলেজে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু সেখানে ক্যান্সার চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নেই। এটা আমার কাছে এক ধরনের অস্বাভাবিক প্রক্রিয়া বলে মনে হয়েছে।

বদলির আদেশে সই করা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহসিন উদ্দিন বলেন, এটা কেবল একটি প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত। এটাকে শাস্তি বলে তিনি মনে করেন না।

মাশরাফিকে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রীড়াব্যক্তিত্ব ও জাতীয় সংসদের সদস্য উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে। ওইদিন মাশরাফি বিন মুর্তজা নিজ আসনের একটি সরকারি হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে বেশ কয়েকজন চিকিৎসকে অনুপস্থিত দেখতে পেয়ে ক্ষুব্ধ হন। পরবর্তী সময়ে এ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বিতর্কের ঝড় ওঠে।

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে টেলিফোনে এক জ্যেষ্ঠ চিকিৎসককে ফোনে তিরস্কার দেখা গেছে নড়াইল এক্সপ্রেস নামে খ্যাত মাশরাফিকে।

রেজাউল করিম বলেন, ফেসবুকে মাশরাফিকে সমালোচনা করে পোস্ট দেয়ার পর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নোটিশ পাওয়া ছয় চিকিৎসকের মধ্যে তিনি একজন। দুই মাস পরেই তাকে দুর্গম রাঙামাটিতে বদলি করা হয়েছে।

চট্টগ্রামের যে ক্যান্সার হাসপাতাল থেকে তাকে হঠাৎ বদলির আদেশ হয়, সেটিতে শতাধিক রোগীর চিকিৎসা দিচ্ছিলেন তিনি। তার বদলি স্থানীয় গণমাধ্যমেও ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের নেতৃত্ব দিতে বর্তমানে ব্রিটেনে রয়েছেন এমপি মাশরাফি বিন মর্তুজা। দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলীয় নড়াইলে জন্মগ্রহণ করেছেন তিনি। নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন নামে তার একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্স ও গ্রামের দরিদ্র কৃষকদের ধানের বীজ বিতরণ করেন।

অবসরের পর খেলোয়াড়দের রাজনীতিতে যোগ দেয়া দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা না। কিন্তু মাশরাফি এখনো খেলছেন। বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেটের অধিনায়ক তিনি। বিশ্বকাপের পরেও দলকে নেতৃত্ব দিতে পারেন এই পেসার।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত