বঙ্গভবনে আজ সন্ধ্যায় নতুন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর শপথ

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০১৯, ০৮:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ইমরান আহমদ ও ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। ফাইল ছবি


বঙ্গভবনে আজ শনিবার সন্ধ্যায় একজন নতুন মন্ত্রী ও একজন প্রতিমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদকে পদোন্নতি দিয়ে মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরাকে প্রতিমন্ত্রী নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ প্রজ্ঞাপন জারি করে।  আজ শনিবার সন্ধ্যায় তারা শপথ নেবেন।  

এর আগে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০১৯’ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বঙ্গভবনে মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে।  তবে কারা শপথ নিচ্ছেন- সে বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সংবিধানের ৫৬ অনুচ্ছেদের (২) দফা অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি ১১ জুলাই ইমরান আহমদকে মন্ত্রী এবং বেগম ফজিলাতুন নেসাকে প্রতিমন্ত্রী পদে নিয়োগ দান করেছেন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদ পদোন্নতি পেয়ে একই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পেতে পারেন।

এ মুহূর্তে এ মন্ত্রণালয়ে কোনো মন্ত্রী নেই। আর ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরাকে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে। এ মন্ত্রণালয়েও কোনো মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী নেই। প্রধানমন্ত্রী নিজে এ মন্ত্রণালয়ের দেখভাল করে আসছেন।

এর আগে ১৯ মে মন্ত্রিসভা পুনর্বিন্যাস করা হয়। তখন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়।

এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারকে একই মন্ত্রণালয়ের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী করা হয়।

এ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্ব প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে দেয়া হয়।

পাশাপাশি তাজুল ইসলামকে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীন স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রী করা হয়।

তাকে আগে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও স্বপন ভট্টাচার্যকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। একই মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয় স্বপন ভট্টাচার্যকে।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। ৪৬ সদস্যের ওই মন্ত্রিসভায় ২৪ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী রয়েছেন।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে ছয় মন্ত্রণালয় রাখা হয়।