‘খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, লক্ষ্য এখন পুষ্টির চাহিদা পূরণ’

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ জুলাই ২০১৯, ১২:৩৫ | অনলাইন সংস্করণ

‘খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, লক্ষ্য এখন পুষ্টির চাহিদা পূরণ’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা নির্বাচনী ইশতেহারে উল্লেখ করেছিলাম- দেশের মানুষের সুষম পুষ্টিমান সম্পন্ন খাদ্য নিশ্চিত করব। আমরা খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি। এখন লক্ষ্য পুষ্টির চাহিদা পূরণ করা।

বৃহস্পতিবার সকালে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (কেআইবি) মিলনায়তনে ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খানের সভাপতিত্বে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব রাইসুল আলম মণ্ডল, মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক।

‘মৎস্য চাষে গড়ব দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’-এ প্রতিপাদ্য নিয়ে এবার পালন করা হচ্ছে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ।

পবিত্র কোরআন, গীতা, বাইবেল ও ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। শুরুতেই মৎস্য চাষের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

মৎস্য চাষ, রেণু উৎপাদনসহ মৎস্য সংক্রান্ত বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার জন্য ৮টি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে স্বর্ণপদক এবং ৯টি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে রৌপ্য পদক প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মৎস্য সপ্তাহ চলবে আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত। এ বছরের জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের স্লোগান- ‘মাছ চাষে গড়ব দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ।’

বুধবার এ উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মৎস্য অধিদফতরের সম্মেলনকক্ষে প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান জানান, ইলিশ মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে প্রথম। আর তেলাপিয়া মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে চতুর্থ। এ ছাড়া মুক্ত জলাশয়ের আহরণে তৃতীয় এবং বদ্ধজলাশয়ে চাষকৃত মাছ উৎপাদনে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে বাংলাদেশ। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রথমবারের মতো দেশ মাছের উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×