সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইটের অকাল মৃত্যু
jugantor
সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইটের অকাল মৃত্যু

  শিবগঞ্জ (চাপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৫ আগস্ট ২০১৯, ১২:৩১:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইট

মাত্র ৩৭ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে গেলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইট।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টায় নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন(ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)।


সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস পৌর এলাকার পুরাতন বাজার হুজরাপুর নিবাসী মরহুম বদর উদ্দিনের বড় ছেলে।

আজ বাদ আসর বিকাল সাড়ে ৫টায় খালঘাট ঈদগাহ ময়দানে জানাজা শেষে খালঘাট কেন্দ্রীয় গোরস্তানে তাকে দাফন করা হবে।

ব্যক্তিগত জীবনে সদালাপি সুইট জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠ, দৈনিক করতোয়া ও গাজী টিভিতে বর্তমানে কর্মরত ছিলেন।

দৈনিক যুগান্তর, আমার দেশ ও চ্যানেল ওয়ানে সাবেক জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন সুইট।
তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, তিনি দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগছিলেন। তিনি বৃদ্ধা মা, স্ত্রী ও ছয় বছরের এক ছেলে, সহকর্মী ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে পরিবারসহ জেলার সাংবাদিক সমাজে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইটের অকাল মৃত্যু

 শিবগঞ্জ (চাপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৫ আগস্ট ২০১৯, ১২:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইট
সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইট

মাত্র ৩৭ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে গেলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস সুইট।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টায় নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন(ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)।


সাংবাদিক ইমতিয়ার ফেরদৌস পৌর এলাকার পুরাতন বাজার হুজরাপুর নিবাসী মরহুম বদর উদ্দিনের বড় ছেলে।

আজ বাদ আসর বিকাল সাড়ে ৫টায় খালঘাট ঈদগাহ ময়দানে জানাজা শেষে খালঘাট কেন্দ্রীয় গোরস্তানে তাকে দাফন করা হবে।

ব্যক্তিগত জীবনে সদালাপি সুইট জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠ, দৈনিক করতোয়া ও গাজী টিভিতে বর্তমানে কর্মরত ছিলেন।

দৈনিক যুগান্তর, আমার দেশ ও চ্যানেল ওয়ানে সাবেক জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন সুইট।
তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, তিনি দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভুগছিলেন। তিনি বৃদ্ধা মা, স্ত্রী ও ছয় বছরের এক ছেলে, সহকর্মী ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে পরিবারসহ জেলার সাংবাদিক সমাজে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।