বারের লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের এবার এমসিকিউ দিতে হবে না
jugantor
বারের লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের এবার এমসিকিউ দিতে হবে না

   

১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:৩১:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

আইনজীবী তালিকাভুক্তির জন্য ২০১৭ সালের লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের এবার আর এমসিকিউ (নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন) পরীক্ষা দিতে হবে না। এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

রোববার বার কাউন্সিলের এক বিজ্ঞপ্তিতে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন সচিব (জেলা ও দায়রা জজ) মো. রফিকুল ইসলাম।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বার কাউন্সিলের গত ১২ সেপ্টেম্বরের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যেসব পরীক্ষার্থী ২০১৭ সালে এনরোলমেন্ট এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং পরবর্তীতে লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের আসন্ন এনরোলমেন্ট এমসিকিউ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে না। তারা শুধু লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন।

২০১৭ সালের ২১ জুলাই এমসিকিউ পরীক্ষায় প্রায় ৩৪ হাজার ২শ' জন অংশ নিয়েছিলেন। পরদিন ২২ জুলাই দেয়া ফলাফলে এমসিকিউ পরীক্ষায় মোট ১১ হাজার ৮৪৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। পরে ১৪ অক্টোবর তারা লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। ২০১৮ সালের ৪ জুন দেয়া ফলাফলে লিখিত পরীক্ষায় আট সহস্রাধিক পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হন।

একই বছরের ২৩ ডিসেম্বর মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

বারের লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের এবার এমসিকিউ দিতে হবে না

  
১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৪:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।
বাংলাদেশ বার কাউন্সিল। ছবি সংগৃহীত

আইনজীবী তালিকাভুক্তির জন্য ২০১৭ সালের লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণদের এবার আর এমসিকিউ (নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্ন) পরীক্ষা দিতে হবে না।  এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

রোববার বার কাউন্সিলের এক বিজ্ঞপ্তিতে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন সচিব (জেলা ও দায়রা জজ) মো. রফিকুল ইসলাম।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বার কাউন্সিলের গত ১২ সেপ্টেম্বরের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যেসব পরীক্ষার্থী ২০১৭ সালে এনরোলমেন্ট এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং পরবর্তীতে লিখিত পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের আসন্ন এনরোলমেন্ট এমসিকিউ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে না। তারা শুধু লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন।  

২০১৭ সালের ২১ জুলাই এমসিকিউ পরীক্ষায়  প্রায় ৩৪ হাজার ২শ' জন অংশ নিয়েছিলেন।  পরদিন ২২ জুলাই দেয়া ফলাফলে এমসিকিউ পরীক্ষায় মোট ১১ হাজার ৮৪৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। পরে ১৪ অক্টোবর তারা লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। ২০১৮ সালের ৪ জুন দেয়া ফলাফলে লিখিত পরীক্ষায় আট সহস্রাধিক পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হন।

একই বছরের ২৩ ডিসেম্বর মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়।